বাংলাদেশের অগ্রগতি এখন আর শুধু আমাদের মুখের কথা নয়–পরিকল্পনামন্ত্রী

2

কুমিল্লা অফিসঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সামগ্রিক অর্থেই এগিয়ে চলছে। উন্নয়নের মহাসড়কে উঠার কথা অনেক আগে থেকেই সর্বমহলে উচ্চারিত হচ্ছে। আমরা যদি আজেকের সংবাদপত্র বা টিভি নিউজগুলো দেখি দেখত পাবো সবাই অত্যন্ত সুন্দর করে নিউজ করেছে উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশের আজও কতগুলো নজির স্থাপন করেছে। তারমানে বাংলাদেশের অগ্রগতি এখন আর শুধু আমাদের মুখের বা শুধু বাংলাদেশের স্বীকৃতি নয়, সমগ্র বিশ্ব আর আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো স্বীকৃতি দিয়েছে। আজকের পত্রিগুলোতে আছে মানবসম্পদ উন্নয়নে ভারতের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। এগিয়ে আছে পাকিস্তান থেকেও। বিশ্ব ব্যাংকের হিউম্যান ক্যাপিটাল ইনডেক্স সূচকে এ তথ্য উঠে এসেছে। বাংলাদেশের জন্য এটা একটি বিশাল অর্জন। সংস্থাটি বলছে, এই মুহূর্তে বাংলাদেশ মানব সম্পদ উন্নয়নে ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে আছে। পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুমৃত্যু হার, শিশুদের স্কুলে যাওয়ার গড় সময়, শিক্ষার মান, প্রাপ্তবয়স্কদের অন্তত ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত টিকে থাকার হার এবং শিশুদের সঠিক আকারে বেড়ে ওঠা- এই পাঁচটি মানদণ্ড ব্যবহার করে সূচকটি তৈরি করা হয়েছে। এই সূচকের মাধ্যমে একটি শিশুর শিক্ষার সুযোগ, স্বাস্থ্য সেবা এবং টিকে থাকার সক্ষমতা বিচার করে ভবিষ্যতে তার উৎপাদনশীলতা এবং আয়ের সম্ভাবনা বোঝার চেষ্টা করেছে বিশ্ব ব্যাংক।উন্নয়নের সেই অভিযাত্রায় মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নতির এ স্বীকৃতি বাংলাদেশের সর্বস্তরে কাজের উৎসাহে দারুণ এক উদ্দীপনা সৃষ্টি করবে।

আজ শনিবার বিকেলে কুমিল্লার লাঙ্গলকোট উপজেলার ডালুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ আয়োজিত বিশাল জনসভায় পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল আরো বলেন, জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ। জয়ী হবার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে মানবাধিকার পরিস্থিতির সামগ্রিক উন্নয়নের স্বীকৃতি মিলেছে। ৯৭ ভোট পেলেই এই সংস্থার সদস্য হওয়া যায়, সেখানে বাংলাদেশ পেয়েছে ১৭৮ ভোট। গত শুক্রবার সকালে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের সদস্যরা এই নির্বাচনে অংশ নেয়। গোপনে ব্যালটের এ নির্বাচনে বিজয়ীরা ৩ বছরের জন্য দায়িত্ব পাবেন আসছে ১ জানুয়ারি থেকে। সারাবিশ্বের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে এই সংস্থা কাজ করে। এমনকি আকাশপথের নিরাপত্তা সূচকে ভালো করায় ‘আইকাও কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট সার্টিফিকেট’ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। এই পুরস্কার বা সনদ অর্জন মূলত আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (আইকাও) সদস্য দেশগুলোর নিরাপত্তাব্যবস্থার উন্নতির স্বীকৃতি। এই সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। কানাডার মন্ট্রিলে আইকাও সদর দফতরে ১৩তম এয়ার নেভিগেশন কনফারেন্সে গত মঙ্গলবার বাংলাদেশকে এ সনদ দেওয়া হয়। এগুলো সবই আমাদের উন্নয়নের অগ্রযাত্রার স্বীকৃতি। সবই আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের ফসল ছাড়া আর কিছু নয়। তাই আমাদেরকে এ উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হবে- শেখ হাসিনাকে আবারো প্রধানমন্ত্রী করতে হবে, জনগনকে পৌছে দিতে হবে উন্নত দেশের মঞ্চে।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল আরো বলেন, কোন দুর্নীতিবাজ, খুনি-সন্ত্রাসী দলের কোন ষড়যন্ত্রের স্বীকার জনগনকে হতে দেওয়া যাবেনা। বাংলাদেশ বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নেত্বেতে যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে সেবাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। এজন্য সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত আমাদেরকে টানা মাঠে থাকতে হবে। দলের সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরাও মাঠে থাকেবে সরকারের উন্নয়ন প্রচারে। লিফলেট বিলির পাশাপাশি ডিজিটাল পদ্ধতিতে সরকারের উন্নয়ন ও অপশক্তির দুঃশাসন, অত্যাচার প্রচারণায় মাঠে আওয়ামীলীগ সরব রয়েছে।

নাঙ্গলকোট উপজেলার ডালুয়ার সিজিআরা উচ্চ বিদ্যালয মাঠ প্রাঙ্গনে বিশাল জনসভায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক আবু তাহের বিএসসির সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন নাঙ্গলকোট উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউুসুফ, মেয়র আব্দুল মালেক, অধ্যক্ষ সাদেক, অধ্যক্ষ আবু উইসুফ, আবু ইউসুফ ভূইয়া এবং আওয়ামী লীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগসহ দলীয় সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।