সরকারি ক্রয়ে সক্ষমতা ও পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে সিপিটিইউ ও আইটিসি (আইএলও) এর চুক্তি স্বাক্ষর

1

যুগবার্তা ডেস্কঃ সরকারি ক্রয়ে সক্ষমতা ও পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক ভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীন বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ) ইতালীর তুরিন এ অবস্থিত আইএলও এর আন্তর্জাতিক ট্রেনিং সেন্টারের (আইটিসি) এর সংগে আজ বুধবার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় সিপিটিইউ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ডাইমেপ প্রকল্পের আওতায় স্বাক্ষরিত এ চুক্তির মেয়াদ ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত। চুক্তির মূল্য ১০০ কোটি ৮৬ লক্ষ ৫২ হাজার ৫শত ৮০ টাকা। ডাইমেপ প্রকল্পের চারটি কম্পোনেন্টের মধ্যে সক্ষমতা ও পেশাদারিত্ব বৃদ্ধি অন্যতম। এর আওতায় প্রায় ১১ হাজার কর্মকর্তা ও ক্রয় সংশিøষ্ট ব্যক্তিবর্গ প্রশিক্ষণ লাভ করবেন । চুক্তি বাস্তবায়নে আইএলও এর আন্তর্জাতিক ট্রেনিং সেন্টারের সংগে নমিনেটেড সাব কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করবে ইঞ্জিনিয়ার স্টাফ কলেজ বাংলাদেশ (ইএসসিবি)।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এফসিএ এমপি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, স্বাক্ষরিত এ চুক্তির আওতায় সরকারি কর্মকর্তা, দুর্নীতি দমন কমিশন কর্মকর্তা, দরদাতা, সাংবাদিক, স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও অন্যান্য সংশিøষ্টদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে সরকারি ক্রয় বিষয়ে বিভিন্ন ধরণের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। সরকারি ক্রয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের ক্ষেত্রে দক্ষতার জন্য আইটিসিআইএলও সারাবিশ্বে বিশেষভাবে পরিচিত। ২০০২ এ সিপিটিইউ প্রতিষ্ঠা এবং পরবর্তী সরকারি ক্রয়ে যে সংস্কার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে সেখানেও আইটিসিআইএলও তার পরামর্শ সেবা প্রদান করেছে। সরকারি ক্রয়ে পেশাদারিত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন ধরণের পেশাদার তৈরির প্রশিক্ষণও এতে অন্তর্ভুক্ত।

সিপিটিইউ মহাপরিচালক মো. ফারুক হোসেন ও আইটিসি আইএলও এর টেকসই উন্নয়ন কর্মসূচির ব্যবস্থাপক রাফ ক্রজার চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব মো. মফিজুল ইসলাম। বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর মিস সেরিন জুমা সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।