মহাকাশে সর্ব বৃহৎ কৃষ্ণগহ্বরের সন্ধান

3

নূর মাজিদ : ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা মহাকাশে একটি বিশাল কৃষ্ণগহ্বরের সন্ধান পেয়েছেন। তাদের ধারণা, এখন পর্যন্ত আবিষ্কৃত কৃষ্ণগহ্বরগুলোর মাঝে এটিই সর্ববৃহৎ। বিজ্ঞানীরা জানান, বিশাল এই কৃষ্ণগহ্বরে আলোর এক তৃতীয়াংশ গতিতে মহাকাশীয় বস্তু এবং গ্যাসের বলয় হারিয়ে যাচ্ছে। কৃষ্ণগহ্বরটির বিপুল অভিকর্ষ টানেই এমনটি ঘটছে। লিচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও মহাকাশ গবেষক কেন পাউন্ডস জানান, তারা কৃষ্ণগহ্বরটির মাঝে পৃথিবীর সমান বস্তুকে আলোর এক তৃতীয়াংশ গতিতে হারিয়ে যেতে দেখেছেন। যা মহাবিশ্বের গতিসীমার এক তৃতীয়াংশ।

পৃথিবী থেকে এই কৃষ্ণগহ্বরটির দূরত্ব প্রায় শত কোটি আলোকবর্ষ। এটি পিজি২১১+১৪৩ ছায়াপথে অবস্থিত। প্রফেসর পাউন্ড ও তার গবেষকদল ইউরোপিয়ান মহাকাশ সংস্থার এক্স-রে পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র এক্সএমএম-নিউটন থেকে এই আবিষ্কার করেন।

তিনি বলেন, পৃথিবীর কাছাকাছি কোথাও এই কৃষ্ণগহ্বরটির অবস্থান হলে তা আমাদের সকলের জন্যে আতঙ্কের কারণ হতো। কৃষ্ণগহ্বর মহাকাশের সবচাইতে শক্তিশালী অস্তিত্ব। দ্রুত বর্ধনশীল কোনো কৃষ্ণগহ্বর মাত্র দুদিনে আমাদের সূর্যকে গ্রাস করে ফেলার ক্ষমতা রাখে।

১৯৯৯ সালে চালু হওয়ার পর থেকেই এক্স-রে টেলিস্কোপ ব্যবহার করে এমন অনেক গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কারে অবদান রেখে চলেছে এক্সএমএম-নিউটন। পৃথিবীর কক্ষপথে স্থাপিত তিনটি এক্স-রে টেলিস্কোপ এই পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সঙ্গে সংযুক্ত আছে। মহাকাশের দূষণমুক্ত পরিবেশে তারা দূরবর্তী ছায়াপথের অনেক পরিষ্কার ছবি ধারণ করতে পারে।-আমাদের সময়.কম