পরিস্থিতি জটিল করবেন না–বাম জোট

14

যুগবার্তা ডেস্কঃ জাতীয় সংসদে নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট গ্রহণের সুযোগ রেখে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) নির্বাচন কমিশন কর্তৃক সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন করায় ক্ষোভ প্রকাশ বাম গণতান্ত্রিক জোট।
শুক্রবার সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুľামান, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নানśু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহবায়ক হামিদুল হক এক যুক্ত বিবৃতি প্রদান করেছে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, নির্বাচনী ব্যবস্থাকে সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ করার জন্য নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত দলসমূহ অসংখ্য প্রস্তাবনা নির্বাচন কমিশনের কাছে দিয়েছিল। সে প্রস্তাবসমূহ বিবেচনায় না নিয়ে যে বিষয়টি আসনś জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাস্তবায়নযোগ্য নয় বলে অধিকাংশ রাজনৈতিক দল বিবেচনা করেছে সে ইভিএম ব্যবহার বিষয়ে তফসিল ঘোষণার মাত্র দুই মাস আগে দ্বিধা বিভক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পর্কে মানুষের আশংকাকে আরো উস্কে দিয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পরে একটা সর্বজনগ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেয়া নির্বাচন কমিশনের কর্তব্য। সেটা না করে বিতর্কিত বিষয়কে সংযুক্ত করার জন্য আরপিও’র সংশোধনী করে নির্বাচন কমিশন পরিস্থিতি আরো জটিল করছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ইভিএম বাস্তবায়নের এটা উপযুক্ত সময় নয়। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে জনআস্থা অর্জন করে এটা কার্যকর করতে হবে। নেতৃবৃন্দ নির্বাচন কমিশনকে পরিস্থিতি জটিল না করে অবিলম্বে আসনś জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার এবং ইভিএম ব্যবহারের সুযোগ রেখে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধন করে আইন পাশ না করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।