আওয়ামী লীগ ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে–কাদের

7

যুগবার্তা ডেস্কঃ পৃথিবীর অনেক দেশই সময় এবং খরচ সাশ্রয়ের লক্ষ্যে ইভিএম প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। তাই আওয়ামী লীগ ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে। তবে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত সরকার মেনে নেবে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুরের ভোগড়া এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

পরিদর্শনকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের কিছু অংশে দুর্ভোগ কমাতে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হওয়ায় বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট প্রকল্পের পরিচালক সানাউল হক ও তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী লিয়াকত আলীকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া গাজীপুর সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিন রেজাকে কার্যক্রমে আরও বেশি তৎপর হতে বলা হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, মহাসড়কে যাত্রা নিরাপদ করতে সব ধরনের নছিমন, করিমন, ভটভটি ও তিন চাকার যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। পরিদর্শনকালে মন্ত্রী উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচনে না গিয়ে আন্দোলনের নামে কোনো দল সহিংসতা সৃষ্টি করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ২০১৪ ও ২০০১ সাল আর ফিরে আসবে না। সেই খোয়াব দেখলে তাদের সে খোয়াব অচিরেই কর্পূরের মতো উড়ে যাবে।

কাদের আরও বলেন, যাঁরা ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে দেশে একটি অস্থিতিশীল, নাজুক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চান, তাঁরা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। গত চার বছরে বিএনপি আন্দোলনের ডাক দিয়ে কখনই সফলতার মুখ দেখেনি। বিএনপির আন্দোলনকে মানুষ ভয় পায়। তাদের আন্দোলন মানেই জ্বালাও-পোড়াও।

মন্ত্রী বলেন, ‘বিরোধী দলের কাজই হচ্ছে সমালোচনা করা। বিরোধী দল থাকলে সমালোচনা তো হবেই। কিন্তু দেশ চলবে সংবিধান অনুসারে। সংবিধান অনুসারে আমরা দেশ চালাব। আমরা সংবিধানের বাইরে কোথায় অবস্থান নিয়েছি, সেটা বিরোধী দলকে পরিষ্কার করে বলতে হবে। নির্বাচন হবে, সেটাও সংবিধানের ভিত্তিতেই।’

পরিদর্শনকালে সড়ক ও জনপথের ঢাকা বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খান, গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, গাজীপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিন রেজাসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।