৫ টি বাম দলের যৌথ বিবৃতি

26

যুগবার্তা ডেস্কঃ আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ৫টি বাম সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। বাসদ (মাহবুব) এর ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক কমরেড সন্তোষ গুপ্ত, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার মোর্শেদ, গণমুক্তি ইউনিয়নের সমন্বয়ক নাসির উদ্দিন আহমেদ নাসু, কমিউনিস্ট ইউনিয়নের সংগঠক আশরাফ সারোয়ার ও বিপ্লবী গার্মেন্টস-টেক্সটাইল শ্রমিক ফোরাম এর আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম সবুজ এক যৌথ বিবৃতিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর গতকাল জিকাতলা, আজ শাহাবাগসহ বিভিন্ন স্থানে সরকারের লেলিয়ে দেয়া বাহিনী কর্তৃক এই হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং পাশাপাশি নৌমন্ত্রীর পদত্যাগসহ শিক্ষার্থীদের নয় দফা দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আজ পুরো পরিবহন খাত মাফিয়া চাঁদাবাজ ও দুর্বৃত্তদের দখলে। এর বেনিফেরিয়ারি হলো সরকারি দলের ক্যাডার, বিআইটিএ এর কর্মকর্তা, পুলিশ ও পরিবহণের মালিক-শ্রমিকরা। পুরো সড়ক ব্যবস্থাপনা ভেঙ্গে পড়েছে। আর শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। সাম্প্রতিক আন্দোলনে শিক্ষার্থীরা চোখে আঙ্গুল দিয়ে সেই অব্যবস্থাপনা দেখিয়ে দিয়েছে। মানুষ এই পরিস্থিতির অবসান চান।

অদক্ষ ড্রাইভার, লাইসেন্সবিহীন বাসের কারণে মালিকরা অঘোষিত ধর্মঘট করে জনদুর্ভোগ বাড়িয়ে দিয়েছে। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন দেখেননি কোটা সংস্কারের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। একারণে তার প্রতিশ্রুতি ও আশ্বাসকেও বিশ্বাসের জায়গায় আনতে পারছে না শিক্ষার্থীরা।

এদিকে, কিশোর তরুণ শিক্ষার্থীরা সুশৃঙ্খলভাবে সড়ক নিয়ন্ত্রণ করে উদাহরণ সৃষ্টি করেছে। সকলেই তাদের নিয়ম মানায় সড়কে ফিরিয়ে এসেছে শৃঙ্খলা। অথচ এসব আন্দোলন দমন করতে তাদের উপর হামলা করছে সরকারি দলের ক্যাডাররা। হামলায় অনেকে আহত হয়েছে। আমরা এসব হামলার তীব্র নিন্দা জানাই এবং শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পুলিশ ও ক্যাডারদের হামলা বন্ধ করার আহবান জানান নেতারা।

নেতৃবৃন্দ দেশবাসীকে এই ফ্যাসিষ্ট সরকাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।