দেশের দ্রুততম মানব তিনি

7

যুগবার্তা ডেস্কঃ টানা সাতবারের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদ। আজ কি আরও একবার সেরা হয়ে দেশের দ্রুততম মানবের খেতাবটি নিজের করে রাখবেন মেজবাহ? যাঁরা অ্যাথলেটিকস ট্র্যাকের ন্যূনতম খোঁজখবর রাখেন, তাঁদের বেশির ভাগ মানুষের উত্তরই ছিল হ্যাঁ। কিন্তু মেজবাহর সাম্রাজ্য গুঁড়িয়ে দিয়েছে বিকেএসপির হাসান মিয়া। হাসান যেন আড়াল থেকে বের হয়ে দ্রুততম মানব হয়ে ঘোষণা দিল, ‘আজ থেকে বাংলাদেশে আমিই সবচেয়ে জোরে দৌড়াই।’

আজ ১৪তম সামার অ্যাথলেটিকসে ১০.৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে ১০০ মিটারে সোনা জিতেছে বিকেএসপির এই ছাত্র। শ্রেষ্ঠত্ব হারানো মেজবাহ সময় নিয়েছেন ১০.৯০ সেকেন্ড। মেজবাহর হতাশার দিনে টানা সাতবার দ্রুততম মানবী হওয়ার রেকর্ড ছুঁয়েছেন নৌবাহিনীর শিরীন আক্তার (১২.২০ সেকেন্ড)।

বিকেএসপিতে নবম শ্রেণিতে পড়া হাসানের বয়স ১৬। জাতীয় পর্যায়ে এবারই প্রথমবারের মতো অংশ নিয়েই চমক উপহার দিল। তবে হাসানকে নিয়ে আশাবাদী ছিলেন কোচ আবদুল্লাহ হেল কাফি। শিষ্য যে পারবে, তা আগে থেকেই নাকি আন্দাজ করতে পেরেছিলেন কাফি। বিকেএসপিতে হাতের তালুতে হাসানকে গড়ে তুলছেন কাফি, তাঁর চেয়ে ভালো আর কেই-বা চেনে হাসানকে।

কুমিল্লার মুরাদনগরের সীমানার পাড় গ্রামে অ্যাথলেটিকস পরিবার থেকে উঠে এসেছে হাসান। বড় দুই ভাই জীবন মিয়া ও ফারুকুল ইসলাম অ্যাথলেট ছিলেন। বড় ভাইয়ের উৎসাহেই বিকেএসপিতে ভর্তি হওয়া।-প্রথমআলো