লাকি আক্তারের বাসায় পুলিশি তল্লাশির তীব্র নিন্দা জানিয়েছে সিপিবি

11

যুগবার্তা ডেস্কঃ বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মো. শাহ আলম এক বিবৃতিতে ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি, গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম সংগঠক কমরেড লাকি আক্তারের বাসায় পুলিশি তল্লাশির তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, গতকাল গভীর রাতে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ ছাড়াই বেআইনিভাবে গোয়েন্দা পুলিশ কমরেড লাকির শান্তিনগরের বাসায় অভিযান চালায়। গোয়েন্দা পুলিশ এক ভীতিকর পরিবেশ ˆতৈরি করে। লাকির পরিবারের সদস্যদের তো বটেই, আশেপাশের বাসার লোকজনকেও পুলিশ আতংকিত করে তোলে। পুলিশকে সকালে আসার কথা বললে, তারা দরজা ভেঙে ঢোকার হুমকি দেয়। বাসায় ঢুকে তারা ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও গালিগালাজ করে এবং বাসার আসবাবপত্র তছনছ করে। এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সোহেল ইসলামকে কোটা সংস্কার আন্দোলনে সম্পৃক্ততার জন্য জিজ্ঞাসাবাদের নামে পুলিশ গ্রেফতার করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, গোয়েন্দা পুলিশের এ ধরনের কর্মকান্ড সামরিক ˆস্বৈরাচারী সরকারের সময়ের কথাই মনে করিয়ে দেয়। সরকার এখন সবকিছুতেই ভয় পেতে শুরু করেছে। আর তাই ভয় দেখিয়ে, আতংক ˆতৈরি করে বিরোধী মতকে সরকার দমন করতে চাইছে। কোটা সংস্কারের ন্যায্য দাবির আন্দোলনকে, সরকার চাতুরতার আশ্রয় নিয়ে নির্মমভাবে দমন করার উদ্যোগ নিয়েছে। কিন্তু এভাবে সরকার কেবল তার কবর খননের কাজকেই ত্বরান্বিত করছে।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ কমরেড লাকি আক্তারের বাসায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযান ও তল্লাশির বিচার দাবি করেন। একইসঙ্গে নেতৃবৃন্দ গ্রেফতারকৃত সোহেল ইসলামের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ সরকারের স্বৈরতান্ত্রিক কর্মকান্ড ও ফ্যাসিবাদী তৎপরতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহবান জানান।