অবিলম্বে কোটা পদ্ধতির যৌক্তিক সংস্কারের প্রজ্ঞাপন প্রদান কর

8

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রের কর্মসংস্থান প্রক্রিয়া সরকারি চাকরিতে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রচলিত কোটা পদ্ধতির যৌক্তিক সংস্কার সাধনকল্পে অবিলম্বে দ্রুত প্রজ্ঞাপন প্রদান করা ও সমগ্রদেশে বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী হামলা বন্ধ, সন্ত্রাসের সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহে শিক্ষার গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে প্রতিবাদী সমাবেশ করেছে ছাত্র ইউনিয়ন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে ডাকসু ক্যাফেটেরিয়ার সামনে শেষ হয়।

বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তারা বলেন, কোটা বাতিলের ঘোষণা প্রদান করে প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনের যৌক্তিকতাকে উপেক্ষা করেছেন। তার ঘোষণা সংকট সমাধান করার পরিবর্তে আরো গভীর করেছে। বরঞ্চ ক্ষমতাসীন সরকার আন্দোলনে যৌক্তিকতা ও ন্যায্যতা উপলব্ধি না করে তার দলীয় ছাত্র সংগঠন দ্বারা শিক্ষার্থীদের উপর হামলা, মামলা, নিপীড়ন, নির্যাতন চালাচ্ছে যা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে কখনই মেনে নেওয়া যায় না। আমরা অবিলম্বে কোটা পদ্ধতির যৌক্তিক সংস্কারের প্রজ্ঞাপন প্রদান করার দাবি জানাই।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী’র সঞ্চালনায় ও সভাপতি জিএম জিলানী শুভ’র সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি সুমন সেন গুপ্ত, অনিক রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক রমেন চক্রবর্তী টিপু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ্, ঢাকা মহানগর সংসদের সভাপতি দীপক শীল প্রমুখ।