মশাল প্রতীক নিয়ে শরীফ নুরুল আম্বিয়ার রীট খারিজ

2

যুগবার্তা ডেস্কঃ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর অনুকুলে নির্বাচনী প্রতীক মশাল সংরক্ষণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়ার দায়ের করা রীট পিটিশন নং-১২২৮০/২০১৬ (শরীফ নুরুল আম্বিয়া বনাব প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং অন্যান্য দুইজন) বৃহস্পতিবার অপরাহ্নে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী এবং বিচারপতি শশাংক শেখর সরকারের সমন্বয়ে গঠিত মহামান্য হাইকোর্টের ১৪নং বেঞ্চ খারিজ করে দিয়েছে।

এখানে উল্লেখ্য জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ ত্যাগ করে বাজাসদ নামে পৃথক রাজনৈতিক দল গঠনকারী জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়া নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর অনুক‚লে মশাল প্রতীক সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত বাতিল এবং তার নেতৃত্বে গঠিত বাজাসদের অনুকূলে মশাল প্রতীক সংরক্ষণে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আদেশ প্রদান চেয়ে ২০১৬ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর রীট পিটিশনটি দাখিল করেছিলেন। পরবর্তীতে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ ত্যাগ করে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি নামে পৃথক দল গঠনকারী আরেকজন আ স ম আবদুর রব হাইকোর্টে এফিডেবিট দাখিল করে এই রীট মামলায় শরীফ নুরুল আম্বিয়ার পক্ষে পক্ষভূক্ত হয়েছিলেন। হাইকোর্টের ১৪ নং বেঞ্চের বিচারপতিদ্বয় এই রীট মামরার শুনানীতে অংশগ্রহণ করার জন্য জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়া ও জনাব আ স ম আবদুর রবের পক্ষের উকিলগণকে কয়েকবার শুনানী করার জন্য তাগিদ দেয়ার পরও তারা শুনানীর জন্য নির্ধারিত তারিখসমূহে দিনের পর দিন অনুপস্থিত থেকেছেন। এরকম পরিস্থিতিতে আজ বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি শশাংক শেখর সরকারের সমন্বয়ে গঠিত মহামান্য হাইকোর্টের ১৪নং বেঞ্চ জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়ার দায়ের করা রীট পিটিশনটি খারিজ করে দেন। হাইকোর্ট কর্তৃক জনাব শরীফ নুরুল আম্বিয়ার দায়ের করা রীট পিটিশনটি খারিজ হবার ফলে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর অনুক‚লে মশাল প্রতীক সংরক্ষিত রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রাখাটা সঠিক ও আইনানুগ বলে প্রমাণীত হলো।

এ রীট পিটিশনে বিবাদী জাসদ সভাপতি জনাব হাসানুল হক ইনুর পক্ষে কৌশলী ছিলেন এডভোকেট ইদ্রিসুর রহমান। তাকে সহযোগীতা করেন এডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত। নির্বাচন কমিশনের কৌশলী ছিলেন এড. তৌহিদুর রহমান।