হাওরের প্রাকৃতিক সম্পদের মাধ্যমে অর্থনীতিতে মাইলফলক সৃষ্টি সম্ভব—মোস্তফা জব্বার

13

যুগবার্তা ডেস্কঃ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী জনাব মোস্তফা জব্বার বলেছেন, বিস্তৃর্ন হাওর অঞ্চলের বিপুল সম্ভাবনাময় প্রাকৃতিক সম্পদের যথাযথ ব্যবহারের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করতে পারলে দেশের অর্থনীতিতে আরও একটি নতুন মাইলফ সৃষ্টি করা সম্ভব। তিনি বলেন, ডিজিটাল কানেকটিভিটি, ভূপ্রকৃতিগত কারণে গ্যাসসহ সম্ভাবনাময় বিভিন্ন খনিজ অনুসন্ধানের মাধ্যমে আহরণ নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ গ্রহণ, পর্যটনের জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ প্রয়োজনীয় অবকাঠামো গড়ে তোলা, মৎস্য সম্পদ সম্প্রসারণে যথাযথ নীতিমালা প্রণয়ন, হাওর অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর শিক্ষাব্যবস্থা সম্প্রসারণ ও ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি এবং বিস্তৃর্ণ হাওরে সঞ্চিত বৃষ্টির পানির যথাযথ ব্যবহার অপরিহার্য। হাওরের জীববৈচিত্র রক্ষার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, হাওরের জীববৈচিত্র বিনস্ট হয় এমন কোন পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না ।

মন্ত্রী শনিবার ঢাকায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে অক্সফাম, প্রতীক এবং সেন্টার ফর ন্যাচারেল রিসোর্স স্টাডিজ এর যৌথ উদ্যোগে চ্যালেঞ্জেস অভ সাসটেইনেবল লাইভলীহোড অভ হাওর কমিউনিটিজ শীর্ষক গোলটেবিল কর্মশালালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

জনাব মোস্তফা জব্বার বলেন, পশ্চাৎপদতা থেকে গত নয় বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ অভাবনীয় সফলতা অর্জন করেছে। হাওরবাসিও পিছিয়ে থাকবে না। উন্নয়নের মূলস্রোতধারায় হাওর অঞ্চলকে সম্পৃক্ত করতে মাননী প্রধানমন্ত্রী তাঁর দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। হাওর উন্নয়ন উদ্যোগ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তিনি যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণের কার্যকর কর্মসূচি প্রনয়ণ ও বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

মন্ত্রী বলেন, হাওরের প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল কানেকটিভিটির জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে প্রাথমিক শিক্ষার এনরোলমেন্ট শতভাগ হলেও হাওরে এ সংখ্যা ৭০ ভাগ এবং ঝরে পড়ার হার অনেক বেশী । এ অবস্থা থেকে উত্তরণে করণীয় নির্ধারণ এবং সে আলোকে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের বিকল্প নেই।

সেন্টার ফর ন্যাচারেল রিসোর্স স্টাডিজ এর পরিচালক এম আনিসুল হক অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন । অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হাওর ও জলাভূমি উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো: মজিবুর রহমান, অক্সফামের প্রোগ্রাম ম্যানেজার ড. মো: খালিদ হোসেন এবং খালিয়াজুরীর সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কিবরিয়া জব্বার বক্তৃতা করেন।

দেশের মোট ভূখন্ডের শতকরা সাড়ে তের ভাগ বা ২০হাজার বর্গকিলোমিটার অঞ্চল হাওর এলাকার অন্তভর্’ক্ত। বিস্তৃর্ণ এ অঞ্চলের ২ কোটি মানুষকে অবহেলিত রেখে জাতীয় অগ্রগতি ত্বরান্বিত হতে পারে না । হাওর অঞ্চল থেকে দেশের মোট উৎপাদিত চাউলের শতকরা ১৮ভাগ জোগান দিয়ে থাকে।