দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে কেন এত অবিশ্বাস?

3

রাজেকুজ্জামান রতন: পৃথিবীর অনেক দেশে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়, অনেকেই এমনটি বলে থাকেন, তারা কি একবারও এখানকার বাস্তবতা উপলব্ধি করেন? আমাদের মনে রাখতে হবে, যেখানে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হয় তাদের নিজেদের দেশের একটা ট্রেডিশন আছে, কনভেনশন আছে যে, নির্বাচনের সময় নির্বাচনকালীন সরকার কি কি করতে পারবে, কি কি করতে পারবে না। তারা সেভাবেই সবকিছু পরিচালিত করে। কিন্তু আমাদের এখানে সেই ট্রেডিশন বা কনভেনশন কখনো পালিত হয়নি। যে কারণে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে একটা অনিশ্চয়তা, অবিশ্বাস ও আস্থাহীনতা থেকেই যাচ্ছে।

মানুষ আসলে আস্থাহীনতায় ভুগছে আমাদের নির্বাচনি ব্যবস্থা নিয়ে। প্রথমত মানুষকে এই আস্থার সংকট থেকে মুক্ত করতে হবে। মানুষকে আত্মবিশ্বাসী, আস্থাশীল করতেই একটি সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য ও অবাধ নির্বাচন হওয়া দরকার। নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণটাকেও নিশ্চিত করা জরুরি। সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মধ্যদিয়ে একটা নির্বাচনি পরিবেশ তৈরি করা গেলে নির্বাচনে হারুক অথবা জিতুক প্রশ্ন কম থাকবে। হারলেও অংশগ্রহণকারী যেন মনে করে, জনগণকে যে কথা দিয়েছিলাম, জনগণ তা গ্রহণ করেনি, আমি আবারও আগামীতে জনগণের কাছে পরীক্ষা দেব। আর জিতলে কেউ যেন মনে না করে যে আমি সব পেয়ে গেছি। মনোভাব যেন এমন হয়, মানুষের অনেক আশা আমার কাছে, তা আমি পূরণ করবই। কিন্তু আমরা দেখেছি যে, পার্লামেন্ট সদস্যরা নির্বাচনে জয় লাভের পর জনগণের আশা পূরণ করার চেয়ে নিজেদের আশা-আকাঙ্খা পূরণ করতেই বেশি সচেষ্ট হয়। যা পাওয়া দরকার আর যা পাওয়া উচিত নয়, সবগুলোই নিজেদের মধ্যে নিয়ে নেয়। মানুষের কাছে তখন মনে হয় নির্বাচন কি তাহলে এই দাঁড়াল যে, এটা কি একটা সিঁড়ি হয়ে গেল, লুণ্ঠন করার আইনসম্মত নামই কি নির্বাচন?
-লেখক : কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, বাসদ।