জীবনে আরো কিছু বছর যোগ করতে…

11

যুগবার্তা ডেস্কঃ ছোটবেলায় হয়তো জীবনযাপনটা বেশ স্বাস্থ্যকরই থাকে। কিন্তু প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর নানা কারণে তা অস্বাস্থ্যকর হয়ে ওঠে। তবে বড়রাও বেশ কিছু অভ্যসের মাধ্যমে তাদের জীবনে আরো কিছু বছর যোগ করতে পারেন। অর্থাৎ, স্বাস্থ্যকর অভ্যাসে বাড়তে পারে আয়ু। আর আয়ু বৃদ্ধির সেসব অভ্যাসের খোঁজ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।
হার্ভার্ড টি.এইচ. চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের বিশেষজ্ঞরা ৭৮ হাজার ৮৬৫ জন নারীর বিগত ৩৪ বছরের জীবনকাল পর্যবেক্ষণ করেছেন। আর ৪৪ হাজার ৩৫৪ জন পুরুষের বিগত ২৭ বছর জীবনকাল দেখেছেন। এই সময়ের মধ্যে তাদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে বিভিন্ন চিকিৎসকের সংগৃহিত তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়।

তারা দেখেছেন কীভাবে জীবনযাপনের ৫ ধরনের কম ঝুঁকিপূর্ণ অভ্যাস মানুষের মৃত্যুঝুঁকির ওপর প্রভাববিস্তার করে। এর মধ্যে রয়েছে ধূমপান ননা করা, কম বডি ম্যাস ইনডেক্স, দিনে অন্তত ৩০ মিনিটের হালকা বা ভারী ব্যায়াম, নিয়ন্ত্রণের মধ্যে অ্যালকোহল পান এবং স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস।

বিজ্ঞানীদের বিশ্লেষণে বলা হয়, যারা এসব কম ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থা মেনে চলেছেন তাদের আয়ু অন্যদের অপেক্ষা অনেক বেড়ে গেছে। যে নারীরা এগুলো নিয়ন্ত্রণে রেখে চলেছেন তাদের জীবনে গড়ে ১৪ বছর বাড়তি যোগ হয়েছে। আর পুরুষদের যোগ হয়েছে গড়ে ১২ বছর। কিন্তু যারা কম ঝুঁকিপূর্ণ জীবনযাপন বৈশিষ্ট্যে সেঁটে থাকেননি তাদের জীবনে বাড়তি আয়ু যোগ হয়নি।
যারা ঝুঁকিপূর্ণ ও অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপনে অভ্যস্ত ছিলেন তাদের ৭৪ শতাংশের মৃত্যুঝুঁকি পর্যবেক্ষণকালীন সময়ে অনেক বেশি ছিল। বিশেষজ্ঞরা আরো দেখেছেন, জীবনযাপনের স্বাস্থ্যকর বৈশিষ্ট্য একেক জনের মাঝে একেকভাবে ক্রিয়াশীল হয়। তবে তাদের সবারই মৃত্যুঝুঁকি কমে আসে। সবমিলিয়ে স্বাস্থ্যকর জীবযাপনে নিঃসন্দেহে জীবনে বাড়তি আয়ু যোগ হবে।

কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনে অভ্যস্ত নয়। এ দলে খুব সামান্য মানুষই মিলবে। কাজেই খাদ্য গ্রহণ, শরীর গঠন এবং সামাজিক ক্রিয়াকলাপে আরো বেশি সচেতন হতে হবে। স্বাস্থ্যকর খাবার এবং জীবনযাপনে মিলবে আরো কিছু বছর।-কালেরকন্ঠ