দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে পর্যটন শিল্প বিকাশের ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে-পরিকল্পনামন্ত্রী

10

যুগবার্তা ডেস্কঃ মানুষের হাতে টাকা হলেই মানুষ এক দেশ আরেক দেশে বেরিয়ে পড়ে, এটা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। শুধুমাত্র এই পর্যটন শিল্পকে কাজে লাগিয়েই নেপাল অনেক বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করছে। তাহলে বাংলাদেশ পারবে না কেন। তাই দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে পর্যটন শিল্প বিকাশের ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। এছাড়া ফসল বহুমুখী করণে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদকক্ষেপের কথা তুলে ধরেন তিনি। রবিবার পরিকল্পনা বিভাগের আওতায় সামাজিক বিজ্ঞান গবেষণা পরিষদের দুটি গবেষণা ফলাফল সংক্রান্ত কর্মশালায় পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসব কথা বলেন।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন, পরিকল্পনা সচিব জিয়াউল ইসলাম, বাস্তবায়ন,পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন ভিবভাগের (আইএমইমইডি) সচিব মো: মফিজুল ইসলামসহ পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যরা।

মাননীয় মন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য সম্ভাবনাময় খাত গুলোর মধ্যে প্রধান তিনটি হচ্ছে, পর্যটন, তথ্য ও প্রযুক্তি এবং স্বাস্থ্য সেবা। এসব খাতে উন্নতি করার মাধ্যমে অর্থনীতি টেকসই করা সম্ভব। তিনি বলেন, যেসব বিদেশী এদেশে ব্যবসা করতে আসেন তাদেরকে আমরা ট্যুরিস্ট হিসেবে ধরি। এটা ঠিক নয়। তারা আসেন তাদো ব্যবসা করতে, বেড়াতে নয়। এজন্যই সঠিক পর্যটকের সংখ্যা পাওয়া যায় না। পরিকল্পনা মন্ত্রীজানান,গত ৩-৪ বছরে আমরা ২০শতাংশ নতুন জমি পেয়েছি। প্রচুন চর জেগে উঠেছে। তাছাড়া নদীতে ক্যাপিটাল ড্রেজিং এর মাধ্যমেও অনেক জমি পাওয়া যাবে। এসব জমির সঠিক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি জমি বাড়াতে হবে।
কর্মশালায় এ কেস স্টাডি অব বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন: ‘ডেভেলপমেন্ট অব ট্যুরিজম ইন্ডাষ্ট্রি ইন বাংলাদেশ’ এবং ‘ক্রপ ডাইভারসিফিকেশন এন্ড ফুড সিকিউরিটি ইন নর্থওয়েস্ট বাংলাদেকষ্ফ শীর্ষক দুটি গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করা হয়।