কোটা সংস্কারের দাবিতে জবি শিক্ষার্থীদের অবরোধ

61

অন্তু আহমেদ,জবি: সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও চাকরি প্রত্যাশীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে ও আটককৃতদের মুক্তি দাবিতে সামিল হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরাও।

সোমবার তারা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের পাশাপাশি সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছে।

এদিন সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার থেকে মিছিল শুরু করে রায় শাহেব বাজার মোড়ে অবস্থান নেয়। এতে গুলিস্তান থেকে সদরঘাট এবং ঢাকা-মাওয়া সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

দুপুর আড়াইটায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা রায় সাহেব বাজার মোড় অবরোধ করে রেখে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছিলেন।

‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই’ স্লোগানে রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদযাত্রা করে শাহবাগে অবস্থান নেন সরকারি চাকরিতে কোটার সংস্কার দাবিতে আন্দোলনকারীরা। দেশের সব জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের’ ব্যানারে পূর্বঘোষিত এ পদযাত্রা কর্মসূচি পালিত হয়।

রোববার রাত ৯টার দিকে শিক্ষার্থীরা সংঘবদ্ধ হয়ে টিএসসি ও চারুকলার সামনে অবস্থান নিলে পুলিশের সঙ্গে কয়েক দফায় তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে আহত অন্তত ৩৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এছাড়া ১১ পুলিশসহ আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী বিএসএমএমইউ এবং বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়। এক পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা ও ভাংচুর এবং বাসভবনের বাইরে একটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটে।

এরপর সোমবার সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, রোববার তাদের আন্দোলনের মধ্যে সারাদেশে অন্তত ৪০ জনকে আটক করা হয়েছে।