জনতার আদালতে দুর্নীতিবাজ হিসাবে দণ্ডিত খালেদা-তারেক

16

নিজস্ব প্রতিবেদক:

জনতার আদালতে দুর্নীতিবাজ হিসাবে দণ্ডিত হয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক রহমান বলে বিবৃতি দিয়েছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ।

বৃহস্পিতার বিকালে জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলায় খালেদা-তারেক দণ্ডিত হওয়ার ঘটনায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এবং সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এক বিবৃতিতে এমন মন্তব্য করেন।

তারা বিবৃত বলেছেন, এই রায়ে জনতার আদালতে বহু পূর্বেই দুর্নীতিবাজ হিসাবে দণ্ডিত খালেদা-তারেক এবার আইনের আদালতেও দুর্নীতিবাজ হিসাবে দণ্ডিত হলেন।

তারা বলেন, দীর্ঘ বিচার প্রক্রিয়া শেষে আইন ও আদালতের দৃষ্টিতে একটি প্রমাণিত অপরাধের বিচার হলো। এটা কোনো বিশেষ ব্যক্তি বা রাজনৈতিক নেতার বিচার না। প্রমাণিত অপরাধের বিচার। রায় পছন্দ হলে আদালত ভাল, রায় পছন্দ না হলে আদালত খারাপ- এই মানসিকতা সমগ্র আইন-আদালত-বিচার ব্যবস্থাকে অস্বীকার করার নামান্তর।

জাসদ নেতৃদ্বয় আরো বলেন, প্রায় ১০ বছর পূর্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দায়ের করা মামলা, তদন্ত করেছে দুদক, বিচার করেছে আদালত। এখানে সরকারের কিছু করারও ছিল না, বলারও ছিল না। একজন অভিযুক্ত আত্মপক্ষ সমর্থন করে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার জন্য যত রকমের আইনী অধিকার ও সুযোগ-সুবিধা রাখে খালেদা-তারেক সেই সব আইনী অধিকার-সুযোগ-সুবিধাই প্রয়োগ করেছেন।

তারা বলেন, এটা রাজনৈতিক মামলাও না, রাজনৈতিক বিচারও না। আদালত কোনো দল বা ব্যক্তি বা নেতাকে নির্বাচনের বাইরে রাখার জন্য রায় দেয়নি। এই রায়ের পূর্বে বিএনপি ইচ্ছামত বহু নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে, ইচ্ছামত বহু নির্বাচন বর্জন করেছে। সুতরাং রায়ের সাথে বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ বা বর্জনের কিছু নেই। আদালতে রায় আর নির্বাচনকে শর্ত যুক্ত করা, রায় আর নির্বাচনকে দরকষাকষির বিষয়ে পরিণত করা দুঃখজনক। আমরা আশাকরি নিম্ন আদালতের রায় পছন্দ না হলে বিএনপি উচ্চ আদালতে যাবে। কিন্তু সন্ত্রাস-সহিংসতা-নাশকতা-আগুনযুদ্ধ চালিয়ে অশান্তি ও অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টির পথে বিএনপি পা বাড়াবে না।