ধূমপান উৎসব

10

যুগবার্তা ডেস্কঃ ধূমপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। একথা জানতে এখন আর কারওর বাকি নেই। সাধারণ মানুষকে ধূমপানের নেশা থেকে বের করে আনতে প্রচারও চলে বিস্তর। এমনকী, সিগারেটের প্যাকেটেও ’Smoking is injurious to health’ লেখা থাকে। কিন্তু, এতকিছুর পরও ধূমপান ছাড়া তো দুর অস্ত, বরং শিশুসন্তানদের সুখটানে উৎসাহ দিচ্ছেন বাবা-মায়েরাই। শুনতে অবাক লাগলেও, এটা ঘোরতর বাস্তব পর্তুগালের ভেলে ডি সালগুইয়েরো গ্রামে। এই গ্রামে মাত্র পাঁচ বছরের শিশুও বাবা-মায়ের অনুমতিতেই ধূমপান করে! কিন্তু, বিপদ জেনেও কেন শিশুদের ধূমপান উৎসাহ দেন বাবা-মায়েরা? ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর দেশের গ্রামে ধূমপানই যে উৎসব পালনের রীতি! ভেলে ডি সালগুইয়েরো গ্রামে বহুকাল ধরে সপ্তাহান্তে কিংস ফেস্ট নামে একটি উৎসব পালিত হয়। সাধারণত শুক্রবার থেকে শুরু হয় এই উৎসব। চলে শনিবার পর্যন্ত। কী হয় এই উৎসবে? প্রাচীন রীতিমাফিক প্রথমে খোলা জায়গায় গণপ্রার্থনায় অংশ নেন গ্রামবাসীরা। এরপর এক ‘রাজা’ গ্রামবাসীদের মধ্যে ওয়াইন ও স্ন্যাক বিতরণ করেন। চলে দেদার নাচ-গান আর হুল্লোড়। এই উৎসব উপলক্ষেই ধূমপান করেন ছেলে-বুড়ো সকলেই। বাদ যায়নি শিশুরাও। কিংস ফেস্টের সময়ে যদি ভেলে ডি সালগুইয়েরো গ্রামে যান, তাহলে দেখবেন, পাঁচ বছরের শিশুও প্রকাশ্যে ধূমপান করছে! এই গ্রামের বাসিন্দা গিলর্মমিনা মাতু বলেন, ‘কেন ধূমপান করা হয়, তা বলতে পারব না। তবে এতে ক্ষতির কিছু নেই। ওরা সত্যিকারের ধূমপান করে না। ধোঁয়া টানার সঙ্গে সঙ্গে ছেড়ে দেয়। আর শুধুমাত্র উৎসবের দিনগুলিতে তো শিশুরা ধূমপান করে। বছরের বাকি সময়ে ওরা সিগারেট চায় না।’
একসময়ে বছরভর ধূমপান এড়িয়ে চলতেন পর্তুগালের বাসিন্দারা। কিন্তু, শীত পড়লেই শুরু হয়ে যেত ধূমপান। বস্তুত, বছরের এই সময়ে তাঁরা এমন অনেক কাজই করতেন, যা বছরের অন্য সময়ে করা যেত না। আর বহু যুগের আগের সেই রেওয়াজই এখনও রয়েছে গিয়েছে ভেলে ডি সালগুইয়েরো গ্রামে। সেখানে কিংস ফেস্ট উপলক্ষে আজও ধূমপান করেন ছেলে-বুড়ো সকলেই। বাদ যায় না শিশুরাও। কিন্তু, এভাবে শিশুদের ধূমপানে উৎসাহ দেওয়াটা যে একেবারেই ঠিক নয়, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।