৭ মার্চের ভাষণ ছিল বাংলার মানুষের মুক্তির সনদ : বাহার

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদর আসনের সংসদ সদস্য হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ছিল বাংলার মানুষের মুক্তির সনদ। তাঁর সেদিনের ভাষণে এদেশের মুক্তিকামী মানুষকে এক মোহনায় দাঁড় করিয়েছিল। নিরস্ত্র জাতিকে ওই ভাষণ ঐক্যবদ্ধ করে সশস্ত্র যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করেছিল।

বুধবার ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণে আবেগের গাঁথুনিতে শক্তি সঞ্চয় করে বীর বাঙালি অস্ত্র ধরেছিল হাজারও বঞ্চনার বিরুদ্ধে। তার এই ঐতিহাসিক ভাষণের পর স্বাধীনতার আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আর কোনো প্রয়োজন মনে করেনি মুক্তিকামী মানুষেরা।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের এই দিনটিকে স্মরণ করতে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগ ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে নগর আওয়ামী লীগের এক বিশাল বহর নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে তিনি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেবেন কুমিল্লা নগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। আ ক ম বাহার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্কো। এ স্বীকৃতি যেন বাংলা, বাঙালি, বাংলাদেশ, সর্বপরি মানুষের স্বাধীনতার প্রতি সমর্থন পুনঃব্যক্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করার আহ্বানের অধীর অপেক্ষায় ছিল বাঙালি জাতি। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ সেই অপেক্ষার অবসান ঘটায়। স্বাধীনতার যে ডাক তিনি দিয়েছিলেন, তা যেন বিদ্যুৎ গতিতে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে। এই ভাষণে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমি নিজেও মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম।’

তিনি বলেন, জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে, অর্জন করছে একে একে অর্জন করছে বিভিন্ন বিশ্ব স্বীকৃতি। তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ অনন্য উচ্চতায় পৌঁছেছে। এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামীতেও নৌকার বিজয়ের কোন বিকল্প নেই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে এবং নৌকার পক্ষে জনসমর্থন গড়ে তোলার জন্য তিনি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করার আহবান জানান।