৩০ ডিসেম্বর কালো দিবস পালন করবে বাম জোট

স্টাফ রিপোটার: বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিশোধের সভায় ঢাকায় বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশী হামলার তীব্র নিন্দা জানানো হয়। সভায় বলা হয়, সভা-সমাবেশ করার অধিকার আমাদের গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক অধিকার। বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার এই অধিকার হরন করে স্বৈরাচারী, ফ্যাসিস্ট কায়দায় ক্ষমতায় থাকতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। গণতান্ত্রিক অধিকার রাখায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে।

সভায় আগামী ৩০ ডিসেম্বর সভা, সমাবেশ বিক্ষোভের মাধ্যমে দেশব্যাপী কালো দিবস পালন এবং সরকারের পদত্যাগ, নির্বাচন ব্যবস্থার সংস্কার ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচন সহ ব্যবস্থা বদলের সংগ্রাম অগ্রসর করতে দেশব্যাপীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

আজ ৭ ডিসেম্বর বিকেলে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্সের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সিপিবি’র সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলম বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)’র সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদকম-লীর সদস্য আব্দুস সাত্তার, বাসদ (মার্কসবাদী)’র সমন্বয়ক মাসুদ রানা, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেদা মিশু, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি হামিদুল হক, সিপিবি’র মিহির ঘোষ, বাসদের জুলফিকার আলী, বাসদ (মার্কসবাদী)’র সীমা দত্ত, তাসলিমা আক্তার, বিপ্লবী গণতান্ত্রিক পার্টির শহিদুল ইসলাম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আব্দুল আলী ও রুবেল সিকদার বক্তব্য রাখেন।

সভায় বলা হয়, চলমান দুঃশাসনে এলপিজি গ্যাসের দামসহ নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় অন্যদিকে পণ্য আমদানি রপ্তানির নামে অনেকে হু-িতে সহ নানা মাধ্যমে টাকা পাচার, নিয়মনীতি উপেক্ষা করে ব্যাংকের ঋণ অনুমোদন খেলাপীঋণ বেড়ে যাওয়া মানুষের জীবনকে দুঃর্বিসহ করে তুলেছে। সমাজে বৈষম্য বেড়ে চলেছে। এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষকে নিজ নিজ দাবীতে সচেতন ও সংগঠিত হয়ে দুঃশাসনের অবসানে গণআন্দোলন বা সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে।

সভায় সভা সমাবেশের গণতান্ত্রিক অধিকার হরন করার অপচেষ্টা রুখে দাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, সরকারের ফ্যাসিবাদী, কতৃত্ববাদী প্রবনতা দিন দিন বেড়েই চলছে। এই সুযোগে নানা অপশক্তি মথাচাড়া দিয়ে উঠছে।

সভায় গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক অধিকার সমুন্নত রাখতে যার যার অবস্থান থেকে আন্দোলন অব্যাহতি রাখার আহ্বান জানানো হয়।