হলের দাবিতে ফের সড়ক অবরোধ জগন্নাথের শিক্ষার্থীদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ ক্যাম্পাসে ধর্মঘট, রাজপথে অবরোধ।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পূর্ব ঘোষিত ধর্মঘট পালনের পাশাপাশি আজ বুধবার আবারও সড়ক অবরোধ করে ধর্মঘট পালন করছেন। নতুন আবাসিক হল নির্মাণের দাবিতে ক্যাম্পাস থেকে মিছির নিেয় তারা পল্টন মোড় ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন। এতে ওই এলাকা ও আশপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।
তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চলা এ আন্দোলনের অংশ হিসেবে আজ সকাল নয়টার দিকে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে জড়ো হন। প্রথমে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল শেষে তাঁরা রায়সাহেব বাজার মোড় ও তাঁতীবাজার মোড় অবরোধ করেন। এতে নর্থসাউথ রোড, ইংলিশ রোড, নবাবপুর রোড, জনসন রোড ও ধোলাইখাল সড়ক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। এ ছাড়া তাঁতীবাজার মোড় হয়ে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের যান চলাচলও বন্ধ হয়ে পড়ে।
গত রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সব অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জরুরি সভায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানানো হয়। তবে শিক্ষা কার্যক্রম যাতে ব্যাহত না হয়, এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বানও জানানো হয় ৷
গত সোমবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর জলকামান থেকে পানি, কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়েছে পুলিশ। এতে ২৫-৩০ জন শিক্ষার্থী আহত হন। এর প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা তাঁতীবাজার মোড়ে ছয় ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এতে ওই এলাকা ও আশপাশের সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দোকানপাটও বন্ধ থাকে।
এরপর একই দাবিতে দ্বিতীয় দফায় গতকাল মঙ্গলবার ও আজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দেন শিক্ষার্থীরা। তবে গতকাল বেলা ১টা ১৫ মিনিটের দিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ তুলে নিলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে আসে। গতকাল অবরোধ তুলে নেওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ফায়জুল ইসলাম বলেন, আজও ধর্মঘট পালন করা হবে। এই আন্দোলনে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সমর্থনের আহ্বান জানান তিনি।
নাজিমউদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারের ঐতিহ্য সংরক্ষণ করে জাতীয় চার নেতার নামে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি হল এবং কেরানীগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব জায়গায় নতুন হল নির্মাণের দাবিতে টানা ২০ দিন ধরে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।
এদিকে শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের বিরুদ্ধে গতকাল মঙ্গলবার নাজিমউদ্দিন রোডে মানববন্ধন করেছে পুরান ঢাকা পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারের জায়গা রক্ষা জাতীয় কমিটি নামের নতুন একটি সংগঠন৷