সুন্দরবনে যৌথ অভিযানে বনদস্যুদের আস্তানা ধ্বংস

মংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ সুন্দরবনে জলদস্যু ও বনদস্যু নির্মূল করতে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ও বনবিভাগ’র যৌথভাবে অপারেশন পাইরেটস হান্ট এর ২য় দিনে শুক্রবার সকালে জলদস্যু ও বনদস্যুদের বিভিন্ন স্থান এবং ওয়াচ টাওয়ার ধ্বংস করা হয়েছে। এসময় বেশ কিছু দেশীয় তৈরী অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। সুন্দরবনের এই স্থান সমূহ হতে জেলেদের উপর অত্যাচার, মুক্তিপণ আদায়, নৌকা ও অন্যান্য মালামাল লুন্ঠন করত। এসব ধ্বংসের ফলে স্থানগুলো জেলে সম্প্রদায় ও মৌয়ালগন বনদস্যু এবং জলদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা পাবে। পূর্ব সুন্দরবনে হারবারিয়া এলাকা হতে এই অপারেশন শুরু হয়। বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড ও বন বিভাগের সদস্যগণ যৌথভাবে সুন্দরবনে সাধারণ জেলে, মৌয়াল ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষকে জলদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য এই অপারেশনস পাইরেটস হান্ট ২য় দিনের মত পরিচালনা করছে। বনদস্যু ও জলদস্যু নির্মূলে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড-এর অভিযান জোরদার করা হয়েছে। তাছাড়া সুন্দরবনের সম্পদ চোরাচালান বন্ধে এবং জলদস্যু ও বনদস্যু নির্মূলে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড ও বন বিভাগের সদস্যদের সহযোগিতায় অপারেশন পাইরেটস হান্ট জোরালো ভাবে সুন্দরবনের বিভিন্ন অল্কলে পরিচালনা করা হচ্ছে। এ ধরনের অভিযান ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে কোস্ট গার্ডের স্টাফ অফিসার অপারেশন লেফটেন্যান্ট এম ফরিদুজ্জামান খান অভিমত ব্যক্ত করেন।