সিলেটে গ্রাহক সেবায় ‘ই-ট্রাফিক পদ্ধতি’ চালু

গ্রাহকদের হয়রানিমুক্ত সেবা প্রদানে ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিস্টেম চালু করেছে সিলেট মহানগর পুলিশ (এসএমপি)।
আজ নগরীর চৌহাট্টায় পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার উপস্থিতিতে ট্রাফিক আইন বাস্তবায়নে গাড়ির কাগজ যাচাই ও দু’টি গাড়িতে লাইসেন্স না থাকায় তাদের বিরুদ্ধে জরিমানাও করা হয়েছে।
পুলিশ কমিশনার বলেন, ডিজিটাল এ পদ্ধতির ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষের হয়রানি অনেক কমে যাবে এবং তাদের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে যাবে।
তিনি বলেন, ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিস্টেম হচ্ছে একটি আধুনিক ট্রাফিক প্রসিকিউসন পদ্ধতি। ডিজিটাল মেশিনের মাধ্যমে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নাম্বার দিলেই গাড়ির মালিকানাসহ রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস, ট্যাক্সসংক্রান্ত সব তথ্য পাওয়া যাবে।
তিনি বলেন, এর ফলে পুলিশ একটি গাড়িতে মামলা প্রদানের সাথে সাথে গাড়ির মালিক ইউক্যাশ এর মাধ্যমে জরিমানা প্রদান করে তার গাড়ির কাগজ নিতে পারবে।
এর আগে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক শাখায় সংযোজন উপলক্ষে এসএমপি সদর দপ্তর শহরের নাইওরপুলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিস্টেম বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে ইউসিবি ব্যাংক, গ্রামীনফোন ও আইসিটি কনসালট্যান্ট এর প্রতিনিধিদের সাথে ডিসি ট্রাফিক এর মধ্যে আলাদা আলাদা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বিপিএম ছাড়াও অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ,অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা,ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তা, ইউসিবি ব্যাংকের প্রতিনিধি, গ্রামীনফোনের প্রতিনিধি ও আইটি কনসালট্যান্ট এর প্রতিনিধিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।-বাসস