সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে শোক কর্মসূচি শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নেপালের কাঠমান্ডু ত্রিভুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহতদের স্মরণে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ তিন দিন ব্যাপী শোক কর্মসূচি শুরু করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মার্চ, ২০১৮) সকাল আটটায় ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাচ পরিধানের মাধ্যমে এ কর্মসূচি শুরু করা হয়।

ওদিন সকাল আটটায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পাশাপাশি কলেজটির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা শোকের প্রতীক কালো ব্যাচ ধারণ করেন।

তিন দিন ব্যাপী কর্মসূচির শুরুর দিনে নেপালে বিমান দূর্ঘটনায় হতাহতদের প্রতি গভীর সমাবেদনা জানিয়ে কলেজটির অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ বলেন, আমি অত্যন্ত গভীর দুঃখের সাথে নেপাল দূর্ঘটনায় আহত ও নিহত প্রত্যেকে ব্যক্তি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। যারা আহত অবস্থায় চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি। আমাদের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী গভীর শোক ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শোক ও উদ্বেগ প্রকাশের পাশাপাশি তিন দিনের শোক কর্মসূচি পালনের নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার শোক কর্মসূচির অংশ হিসেবে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের লেকচার গ্যালারী-৩ এ বেলা ১১টায় এক শোক সভার আয়োজন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে চার ক্রু ও ৬৭ আরোহী নিয়ে বাংলাদেশি ইউএস-বাংলার বিএস-২২১ ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হয়। এতে অর্ধশত যাত্রীর প্রাণহানি ঘটে। ঘটনাস্থলে মারা যান ৩২ জন। এ নিহতদের মধ্যে সিলেটের রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের ১১ শিক্ষার্থী রয়েছেন। এছাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২১ যাত্রী। উড়োজাহাজের যাত্রীদের মধ্যে ৩২ জন বাংলাদেশি, ৩৩ জন নেপালি, একজন মালদ্বীপ ও একজন চীনের নাগরিক ছিলেন। প্রাপ্তবয়স্ক ৬৫ এবং দুই শিশু ছিল।