সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড মিহির ঘোষসহ ৬ জন নেতার জামিন বাতিল

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গাইবান্ধা জেলা সভাপতি কমরেড মিহির ঘোষসহ সিপিবির ৬ জন নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলায় মহামান্য হাইকোর্টের জামিনের পর নিম্ন আদালতে জামিন বাতিল করেছে।
জামিন বাতিল হওয়ায়, আজ এক বিবৃতিতে সিপিবি’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সিপিবির নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে কমরেড মিহির ঘোষসহ নেতৃবৃন্দের মুক্তি দাবি করেন।
বিবৃতিতে সিপিবির নেতৃবৃন্দ বলেন, কমরেড মিহির ঘোষের মতো জনপ্রিয় রাজনৈতিক নেতার ব্যাপারে এ ধরনের সিদ্ধান্ত দেশের সর্বস্তরের জনগণের ন্যায়বিচার পাওয়ার ব্যাপারে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। একইসঙ্গে বিচার বিভাগের দলীয়করণে দেশের জনগণের আইনি অধিকার আজ হুমকির মুখে পড়েছে। মহামান্য হাইকোর্টের জামিনের পরও নিম্নআদালতে জামিন না হওয়া উদ্বেগজনক।

উল্লেখ্য, সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড মিহির ঘোষ, গিদারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী কমরেড ছাদেকুল ইসালম মাস্টারসহ সিপিবির ৬ নেতার বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ক্ষমতাসীন দলের গাইবান্ধার কতিপয় স্থানীয় নেতা রাষ্ট্রদ্রোহ আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা দায়ের করে। গত ৯ ডিসেম্বর মহামান্য হাইকোর্ট তাঁদের আগাম জামিন মঞ্জুর করেন এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রংপুর ডিজিটাল ট্রাইবুন্যাল আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করার নির্দেশনা দেন। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আজ ১৯ জানুয়ারি কমরেড মিহির ঘোষসহ নেতৃবৃন্দ আদালতে হাজির হলে, আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাঁদেরকে জেলে পাঠান।