‘সার্ক কোভিড-১৯ জরুরি তহবিলের’ আওতায় নেপালকে করোনা চিকিৎসা সামগ্রী প্রদান করলো বাংলাদেশ

4

ডেস্ক রিপোর্ট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন আজ নেপালের রাষ্ট্রদূত ড. বংশিধর মিশ্রের নিকট করোনার ঔষধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী হস্তান্তর করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে গঠিত ‘সার্ক কোভিড-১৯ জরুরি তহবিলের’ আওতায় বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে নেপালের জনগণের প্রতি বন্ধুত্বের নিদর্শনস্বরূপ এ উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়। এ সকল উপহার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশে তৈরি রেমিডেসিভির ইনজেকশন, পিপিই, হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং ফ্লোর ক্লিনার।

এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী করোনার প্রতিরোধে বাংলাদেশের দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ এবং উন্নত দেশসমূহে বাংলাদেশের উন্নত মানের ঔষধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী রপ্তানির বিষয়টি উল্লেখ করেন।

নেপালের রাষ্ট্রদূত করোনার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপ এবং এদেশের উদ্যোক্তা ও ঔষধ প্রস্তুতকারক কোম্পানিগুলোর ভূয়সী প্রশংসা করেন। সমাজের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশের গৃহীত কার্যক্রম থেকে শিক্ষণীয় আছে বলেও তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। এছাড়া সার্কভুক্ত দেশসমূহের মধ্যে এ ধরনের সহযোগিতা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে বলে ড. বংশিধর মিশ্র আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

এ বছর মার্চ মাসে সার্ক নের্তৃবৃন্দের অংশগ্রহণে একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে “সার্ক কোভিড-১৯ জরুরি তহবিল” গঠন করা হয়, যা নিজ নিজ দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। উক্ত তহবিলে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫ লক্ষ মার্কিন ডলার প্রদান করেন।