সাদ ও সৌদি ওজার কোম্পানির সমস্যা গ্রস্ত বাংলাদেশী শ্রমিকদের পাশে বাংলাদেশ দুতাবাস

এম আর কবির ঃ সাদ ও সৌদিওজার কোম্পানি সহ বিভিন্য কোম্পানির হাজার হাজার শ্রমিকের ৭/৮ মাসের বেতন বকেয়া থাকায় মানবেতর জীবন যাপনের অভিযোক ওঠায় ,বাংলাদেশ দুতাবাস শ্রমিকদের পাশে দাড়ান ।আজ দুতাবাসে সম্প্রতি কিছু অপহরনের ও শ্রমিকদের বিভিন্য সমস্যা সম্পর্কে জানতে শ্রম কাউন্সেলর সরোয়ার এ আলম ও প্রথম সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের দারস্থ হলেম । সাদ ও সৌদি ওজরের প্রায় ২০০০ হাজার বাংলাদেশি শ্রমিকের ৭/৮ মাসের বেতন বকেয়া থাকায় কথা স্বীকার করে শ্রম কাউন্সেলর বলেন আমরা অনবরত শ্রমিদের সমস্যা নিয়ে কাজ করছি ,যেখানেই শ্রমিকদে সমস্যার কথা শুনছি সেখানেই ছুটে যাচ্ছি ।তিনি বলেন সৌদি ওজার একটি বড় কোম্পানি প্রায় ১৭০০শত বাংলাদেশী শ্রমিক কাজ করেন ,এদের মধ্য আল বাওয়ানী কোম্পানিতে ২৫০জ্ন বাংলাদেশী রয়েছেন । বেতন ভাতা ঠিকমত না পেয়ে শ্রমিকরা রীতিমত অসুস্থ হয়ে পরেছেন অনেকেই ,খাবার সহ নানাবিধ সমস্যা ও অসুস্থ্য শ্রমিকদের সরকারের সায়্তা নিয়েই দুতাবাস কাজ করে যাচ্ছে ।দাম্মামে সাদ কোম্পানির ১৪৪জন বাংলাদেশী রয়েছে তাদের খাবার সংকট স্থানীয় কমনীটির নেতৃবৃন্দুর স্বহয়তা ও দুতাবাস থেকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে । শ্রমিকদের ইন্সুরেন্স না থাকা ও ভিসার মেয়াদ শেষহওয়াতে চিকিৎসা সেবা নিতে পারচ্ছে না অনেকেই তাদেকেও সহায়তা করা হবে ,অভিযুক্ত শ্রমিদের মামলা মকর্দমা সহায়তা সহ তাদের স্পন্সর পরিবর্তনে ও যারা দেশে যেতেচান তাদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস ব্যক্ত করেন , তিনি অপহরণ সহ বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারীদের জিরো ট্রলারেন্স ঘোষনা করেন ।
দুতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে ধন্যবাদ জানাতে আসা সম্প্রতি অপহরনের স্বীকার ,গোপালগঞ্জ জেলার তুঙ্গীপারা উপজেলার ডুমরিয়ার মৃত্যু সেখ মোসারেফ হোসেনের প্রবাসী পুত্র রুহুল আমিনকে ২০॥২৫ জনের একটি অপহরণ কারী গুষ্ঠি মাইক্রোবাসে করে নিয়ে যায় রিয়াদের অদূরেই হারাজের কোনো এক হোটেলে রেখে রুহুল আমিনের মায়ের কাছে বাংলাদেশে ১০ লক্ষ্য টাকা মুক্তিপণ হিসেবে দাবি করেন । এ ঘটনা রুহুল আমিনের সহকর্মীগন প্রশাসন ও দুতাবাসের স্বর্ণাপন্য হলে ,দুতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান রিয়াদের কমনীটির বেক্তিবর্গের সহায়তায় গত ৪ঠাআগস্ট কোনরূপ মুক্তিপণ ছাড়াই মুক্ত করেন ।এ বেপারে একটি অপহরণ মামলা হয়েছেন বলে জানান রুহুল আমিন ও দূতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ।