সাংবাদিকদের কর্মবিরতির ডাক;নুতন বেতন স্কেল চাই

যুগবার্তা ডেস্কঃ সাংবাদিকদের নতুন বেতন কাঠামো নবম ওয়েজবোর্ডের দাবিতে কর্মবিরতির কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নেতারা।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে বিএফইউজের মহাসচিব ওমর ফারুক চৌধুরী সাংবাদিকদের নতুন বেতন কাঠামোর দাবিতে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, ২৫ নভেম্বরের মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ড গঠন ও বাস্তবায়ন না হলে ২৭ নভেম্বর সারাদেশের সাংবাদিকরা বিক্ষোভ সমাবেশ করবে।

সমাবেশ শেষে ঢাকার সাংবাদিকরা তথ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেবেন এবং জেলার সাংবাদিকরা নিজ নিজ জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি জমা দেবে।

এর মধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে ১৩ ডিসেম্বর দেশের সকল প্রেস ক্লাবের সামনে দুপুর ১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন সাংবাদিকরা।

“এছাড়া আগামী ১০ থেকে ১৩ ডিসেম্বর দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত সকল সংবাদকর্মীরা ১ ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করবে। এই সময়ের মধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে ২০ থেকে ২৫ ডিসেম্বর ২ ঘণ্টা করে কর্মবিরতিতে যাবে সাংবাদিকরা,” বলেন ওমর ফারুক।

এরপর ৩০ ডিসেম্বর সারা দেশের সাংবাদিকদের নিয়ে ঢাকায় মহাসমাবেশের ঘোষণাও দেন বিএফইউজে মহাসচিব।

সমাবেশে বিএফইউজের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, “শুধু বেতন বৃদ্ধি নয়, এই শিল্পে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে অনতিবিলম্বে নবম ওয়েজবোর্ড ঘোষণা করতে হবে।

“দেশের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি করার বিরুদ্ধে আমরা না। তবে এই বেতন বৃদ্ধির সাথে সাথে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে, অথচ আমরা একই অবস্থায় আছি।”

নবম ওয়েজবোর্ডের আওতায় প্রিন্ট মিডিয়ার সঙ্গে ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়াকেও অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

তথ‌্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু একদিন আগেই এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের নবম ওয়েজ বোর্ড আগামী বছরের মধ‌্যে গঠনের আশ্বাস দিয়েছেন। ইলেকট্রনিক মিডিয়াকে এর আওতায় আনতে আরও আলোচনার জন‌্য সময় নেওয়ার কথা বলেন তিনি।

বিএফইউজে সভাপতি বুলবুল বলেন, “তথ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন অতি দ্রুত করতে হবে। দ্রুত সময়ের মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন করতে হবে।”

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএফইউজের সাবেক মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক রাজু আহম্মেদ প্রমুখ।

সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত এই সমাবেশে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট ফোরাম, অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামও ব্যানার নিয়ে অংশ নেয়।