সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান

রাজশাহী অফিসঃ নিজেদের দাবি আদায়ে আন্দোলন গড়ে তুলতে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে)। কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়োগপত্র প্রদান, ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের দাবি, সাংবাদিক নির্যাতন ও হয়রানি এবং বিনা কারণে চাকরিচ্যুতির প্রতিবাদে রাজশাহীতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে আরইউজের নেতৃবৃন্দ এই আহ্বান জানান।

শুক্রবার সকালে নগরীর আলুপট্টি মোড়ে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন আরইউজের সভাপতি কাজী শাহেদ। প্রায় ঘন্টাব্যাপি ওই মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সবচেয়ে বেশি নিপীড়নের শিকার হন সাংবাদিকরা। হাতের মুঠোয় জীবন নিয়ে তারা কাজ করেন। অথচ তাদের চাকরির কোনো নিরাপত্তা নেই। কথায় কথায় তাদের চাকরিচ্যুতি করা হয়। তাই কর্মরত সকল সাংবাদিককে নিয়োগপত্র প্রদান করতে হবে। বিনা কারণে কোনো নোটিশ ছাড়া সাংবাদিকদের চাকরিচ্যুতি চলবে না। এমনটি করা হলে ওই সাংবাদিক মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিলে আরইউজে তার পাশে থাকবে।

বক্তারা আরও বলেন, পত্রিকাগুলো নানা ‘কৌশলে’ তাদের বিজ্ঞাপনের মূল্য বৃদ্ধি করে। কিন্তু বছরের পর বছর ওই প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকদের ওয়েজবোর্ড বাস্গবায়ন হয় না। সাংবাদিকরা সামান্য বেতনে মানবেতর জীবনযাপন করেন। তাই অনতিবিলম্বে ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন করতে হবে। তা না হলে আন্দোলনের মাধ্যমে মালিকপক্ষকে বাধ্য করা হবে।

আরইউজে নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামি ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে রাজশাহীর মিডিয়া হাউসগুলোকে তাদের সব সাংবাদিককে নিয়োগপত্র দিতে হবে। এর ব্যত্যয় হলে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। প্রয়োজনে পত্রিকা অফিসগুলোর সামনে রাস্তায় গিয়ে বসা হবে। সব সাংবাদিক ঐক্যবদ্ধ হলে মালিকপক্ষ দাবি মানতে বাধ্য।
রাজশাহীর যেসব সাংবাদিকের নামে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করা হয়েছে সেগুলোও প্রত্যাহারের দাবি জানান আরইউজের নেতৃবৃন্দ। পাশাপাশি যেসব সাংবাদিক বিনা কারণে কোনো নোটিশ ছাড়াই তাদের চাকরি হারিয়েছেন, তাদেরকে আগামি রোববার শ্রম আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। আরইউজে তাদের পাশে থাকবে বলেও ঘোষণা দেওয়া হয়।

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, আরইউজের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান খান আলম, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) নির্বাহী সদস্য জাবীদ অপু, রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোমিনুল ইসলাম বাবু, আরইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শিবলী নোমান, আরইউজের কোষাধ্যক্ষ তবিবুর রহমান মাসুম, সদস্য তানজিমুল হক, শামীম হোসেন প্রমূখ। মানববন্ধন সঞ্চালনা করেন আরইউজের সাধারণ সম্পাদক মামুন-অর-রশিদ।