সম্পাদক মন্ডলীর আংশিক কমিটি ঘোষণা আওয়ামী লীগে

যুগবার্তা ডেস্কঃ জাতীয় সম্মেলনের দুই দিনের মাথায় কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সম্পাদকমণ্ডলীর আংশিক নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই নাম ঘোষণা করেন নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
আগের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মো. মিসবাহ্ উদ্দিন সিরাজ, বি এম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবারও একই দায়িত্বে আছেন। তাদের সঙ্গে যোগ হয়েছে এনামুল হক শামীম ও ব‌্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল নাম।
ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এনামুল হক শামীম আগের কমিটিতে কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ছিলেন। আর চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে এবারই প্রথম এলেন।
আগের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ‌্যে বীর বাহাদুর এবার বাদ পড়েছেন। আগের কমিটিতে সাতজন সাংগঠনিক সম্পাদক থাকলেও এবার কাউন্সিলে গঠনতন্ত্র সংশোধন করে একটি পদ বাড়ানো হয়।
সম্পাদকমণ্ডলীর বাকি ১৯টি পদের মধ‌্যে ১৪ জনের নাম ঘোষণা করেছেন ওবায়দুল কাদের। এর মধ‌্যে ছয়টি পদে এসেছে নতুন মুখ।
অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক পদে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের জায়গায় এসেছেন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি রংপুরের সংসদ সদস্য টিপু মুনশি। নতুন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক হয়েছেন আগের কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সুজিত রায় নন্দী। আগে এই দায়িত্বে ছিলেন ফরিদুন্নাহার লাইলী। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক পদে এবি তাজুল ইসলামের জায়গায় এসেছেন মুন্সীগঞ্জের সাংসদ মৃণাল কান্তি দাস, যিনি আগের কমিটিতে ছিলেন উপ-দপ্তর সম্পাদক। শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন শামসুন্নাহার চাঁপা। আগের কমিটির শিক্ষা সম্পাদক নূরুল ইসলাম নাহিদ এবার সভাপতিমণ্ডলীতে স্থান পেয়েছেন। সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে আসাদুজ্জামান নূরের জায়গায় এসেছেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, যিনি আগের কমিটিতে উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ছিলেন।
স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিব) ‍নেতা ডা. রোকেয়া সুলতানা; আগে ডা. বদিউজ্জামান ভুইয়া ডাবলু ছিলেন এই পদে।
এছাড়া সম্পাদকমণ্ডলীর আট সদস‌্যকে আরও তিন বছরের জন‌্য একই দায়িত্ব দিয়েছে আওয়ামী লীগ। আইন বিষয়ক সম্পাদক: আব্দুল মতিন খসরু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক: অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক: আবদুস সোবহান গোলাপ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক: শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক: হাছান মাহমুদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক: ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক: আবদুস সাত্তার, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক: হাবিবুর রহমান সিরাজ।
রোববার আওয়ামী লীগের সম্মেলনের নির্বাচনী অধিবেশনে শেখ হাসিনা আবারও দলের সভাপতি নির্বাচিত হন। তার সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন আগের কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস‌্য ওবায়দুল কাদের।
সভাপতিমণ্ডলীর ১৭টি পদের মধ‌্যে যে ১৪ জন, কোষাধ‌্যক্ষ এবং চার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকসহ ২১ পদে যাদের নাম সেদিন ঘোষণা করা হয়েছিল, সে নামগুলো এই সংবাদ সম্মেলনেও পরে শোনান কাদের।
সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, কাজী জাফর উল্যাহ, সাহারা খাতুন, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য‌্য, নুরুল ইসলাম নাহিদ, আবদুর রাজ্জাক, ফারুক খান, রমেশ চন্দ্র সেন, আবদুল মান্নান খান।
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হলেন, মাহাবুব-উল-আলম হানিফ, দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক
, আবদুর রহমান। এবং কোষাধ‌্যক্ষ: এন এইচ আশিকুর রহমান
সভাপতিমণ্ডলীর তিনটি, সম্পাদকমণ্ডলীর পাঁচটি, উপ সম্পাদকের দুটি এবং কার্যনির্বাহী সংসদের ২৮টি পদে কারা দায়িত্ব পাবেন তা এখনও ঘোষণার অপেক্ষায়।
কাদের জানান, আগামী শুক্রবার সন্ধ‌্যা ৭টায় নতুন সভাপতিমণ্ডলীর প্রথম সভা বসবে। সেখানে কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য নির্বাচন করা হবে। এছাড়া বাকি পদগুলোসহ পূর্ণাঙ্গ কমিটি এক সপ্তাহের মধ‌্যে ঘোষণা করা হবে বলে জানান তিনি।