লুমান গার্মেন্ট শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের না করলে রবিরার থেকে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি

যুগবার্তা ডেস্কঃ বন্ধ ঘোষিত মালিবাগের লুমান গ্রুপের দুটি কারখানার শ্রমিকদের সার্ভিস বেনিফিটসহ অন্যান্য আইনগত পাওনা পরিশোধ না করায় আজ সকাল ৮টা থেকে সহস্রাধিক শ্রমিক ঢাকার ডিআইটি রোড অবরোধ করে। তারা বেলা সাড়ে ১১টায় অবরোধ প্রত্যাহার ও মিছিল করে জাতীয় প্রেসক্লাবে এসে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

শ্রমিকরা চুক্তি ভঙ্গকারী মালিককে গ্রেফতার করে অবিলম্বে শ্রমিকদের সকল পাওনা পরিশোধ দাবি জানায়। অন্যথায় আগামী রবিবার সকাল ১০টা থেকে শ্রম মন্ত্রণালয়েল আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়েল সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে।
উল্লেখ্য, ব্যবসা সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে লুমান গ্রুপের মালিক পক্ষ গত জানুয়ারি মাসে লুমান ও লুফা গার্মেন্ট কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করে। আইন অনুযায়ী ৩০দিনের মধ্যে শ্রমিকদের সকল পাওনা পরিশোধের বিধান থাকলেও মালিক পাওনা পরিশোধ না করার কৌশল অবলম্বন করে। শ্রমিকদের টানা ৬ রাত ৭দিন কারখানায় অবস্থান আন্দোলনের চাপে গত ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শ্রমিক-মালিক-সরকার ত্রিপক্ষীয় চুক্তি সম্পাদন হয়। চুক্তি অনুযায়ী আজ শ্রমিকদের সার্ভিস বেনিফিটসহ অন্যান্য আইনগত পাওনা পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তু মালিক চুক্তি অনুসারে আজ শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধে অস্বীকার করায় শ্রমিকদের আবারো আন্দোলনে নামতে হচ্ছে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা, জননেতা কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম শ্রমিকদের ন্যায্য দাবির আন্দোলনের প্রতি সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।

গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র লুমান ফ্যাশন লিঃ কারখানা কমিটির সভাপতি নূল মোহাম্মদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরি সভাপতি কাজী রুহুল আমীন, সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, কেন্দ্রীয় নেতা সাদেকুর রহমান শামীম, মঞ্জুর মঈন, আঞ্চলিক নেতা জাহাঙ্গীর আলম, কারখানার শ্রমিক চায়না আক্তার প্রমুখ।