রাস্ট্রপতি মোংলা বন্দরে ৪টি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ মহামান্য রাস্ট্রপতি আব্দুল হামিদ আগামীকাল বুধবার মোংলায় আসছেন। বুধবার সন্ধ্যায় রাস্ট্রপতি মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন। এসময় তিনি বন্দর উন্নয়নে মোট ৫ হাজার ২৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪টি প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এ কে এম ফারুক হাসান জানিয়েছেন ১৯৫০ সালের ১ ডিসেম্বর মোংলা বন্দর প্রতিষ্ঠা হয়। প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়। তবে গত ১ ডিসেম্বর ২০১৭-তে ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়নি। ৪ এপ্রিল বুধবার মহামান্য রাস্ট্রপতিকে প্রধান অতিথি করে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হচ্ছে। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে রাস্ট্রপতি মোট ৫ হাজার ২৬ কোটি ব্যয়ে বন্দর উন্নয়নে ৪টি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। প্রকল্প গুলি হচ্ছে চীনের সাথে জি টু জি প্রকল্পের আওতায় মোংলা বন্দরের সুবিধাদির সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন প্রকল্প। এ প্রকল্পে ব্যয় হবে ৪ হাজার ৪শ ৭৭ কোটি টাকা। এই প্রকল্পের আওতায় যেসব উন্নয়নমূলক কাজ হবে তা হচ্ছে বন্দরে কন্টেইনার টার্মিনাল, কন্টেইনার ডেলিভারী ইয়ার্ড, বহুতল কার ইয়ার্ড ও কন্টেইনার ইয়ার্ড নির্মান, পশুর চ্যানেলে ডুবন্ত রেক অপসারণ, মোংলা বন্দরের প্রধান সড়ক ছয় লেন ও বাইপাস সড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ, বন্দরের জেটির নীচে জমায়িত পলি ভেঙ্গে পড়া রোধকরণ এবং মোবাইল এক্সরে কন্টেইনার স্ক্যানার সিস্টেম প্রবর্তন। এর বাইরে অন্য যে তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হবে তা হলো ৪শ ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশীপ প্রকল্পের আওতায় মোংলা বন্দরের দুটি অসম্পূর্ণ জেটি নির্মান, ১১৯ কোটি টাকা ব্যয়ে কয়লা পরিবহনের জন্য বন্দর জেটি হতে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র পর্যন্ত পশুর নদীর ১৩ কিলোমিটার ড্রেজিং কার্যক্রম এবং ইতিমধ্যে ১৮ কোটি টাকা দিয়ে ফিনল্যান্ড থেকে কেনা অয়েল স্পিল রিকভারি ভেসেল পশুর রিভার ক্লিনার-১। জি টু জি আ্ওতায় বন্দরের সুবিধাদি সম্প্রসারণ ও উনśয়ন প্রকল্প ২০১৭-১৮ অর্থ বছর হতে ২০২১-২২ অর্থ বছরকে বাস্তবায়নকাল হিসেবে ধরা হয়েছে। অন্যান্য প্রকল্প গুলির বাস্তয়নকাল হচ্ছে পিপিপি’র আ্ওতায় দুটি অসম্পূর্ণ জেটি হবে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে, বন্দর জেটি হতে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র পর্যন্ত পশুর নদীর ১৩ কিলোমিটার ড্রেজিং কার্যক্রম শেষ হবে জুন ২০১৮’র মধ্যে। যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করা হবে তার মধ্যে একটি প্রকল্প ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন হয়ে গেছে। সেটি হচ্ছে ১৮ কোট টাকা দিয়ে ফিনল্যান্ড থেকে অয়েল স্পিল রিকভারি ভেসেল পশুর ক্লিনার-১ কেনা হয়েছে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সূত্রে জানা গেছে রাস্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ বন্দর ভবনের সামনে অনুষ্ঠান স্থলে ৪ এপ্রিল বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় আগমন করবেন এবং ৭টা ৫ মিনিটের সময় তিনি বৃক্ষ রোপন ও মোনাজাতে অংশ নিবেন। সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটের সময় ডিজিটাল পদ্ধতিতে বন্দর ভবনের সামনে অনুষ্ঠান স্থল থেকে প্রকল্পসমুহের উদ্বোধন করবেন। ৭টা ৫২ মিনিটে রাস্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ বন্দর দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন। ৮ টা ৫ মিনিটে তিনি বন্দর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেট কাটবেন বলে জানা গেছে। এছাড়া রাত ৮টা ১০ মিনিটে রাস্ট্রপতি দেশ বরেণ্য শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। বন্দর দিবসের অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী মোঃ শাজাহান খান ও মোংলা-রামপাল আসনের সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক।

অন্যদিকে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে রাস্ট্রপতির আগমনকে কেন্দ্র মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ভবন, জেটি, গেস্ট হাউজ পারিজাতসহ তার আশ-পাশ এলাকা নতুন সাজে সাজছে। দিন-রাত পরিশ্রম করছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা ও কর্মচারিগণ।