রাজশাহীতে ফারাজ স্বরণে বিতর্ক উৎসব

রাজশাহী অফিসঃ ‘যুক্তির মুখরতায় জাগ্রত মানবতা’ শ্লোগানকে সামনে রেখে রাজশাহীতে শুরু হয়েছে পঞ্চম জাতীয় মেডিকেল কলেজ বিতর্ক ও কুইজ উৎসব। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) ডা. কাইছার রহমান অডিটরিয়ামে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী এ বিতর্ক উৎসব।

ফারাজ আইয়াজ হোসেন স্মরণে ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশন বাংলাদেশ (এনডিএফবিডি) ও রামেক ডিবেটিং ক্লাব যৌথভাবে এ বিতর্ক উৎসবের আয়োজন করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কামরুল হাসান খান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘যে দেশকে দিতে পারে, দেশের জন্য কাজ করতে পারে, সেই সবচেয়ে শক্তিশালী মানুষ। আজকের তরুণদের সামনে রয়েছে উজ্জ্বল সম্ভাবনা। আজকের তরুণ মেডিকেল শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনে দেশের মানুষের সেবা করবে, দেশের কল্যাণে কাজ করবে। তাই আমাদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করতে হবে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের চিকিৎসা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য জন্যস্বাস্থ অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক ডা. দীন মোহাম্মদ নুরুল হককে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়।

এ সময় ডা. দীন মোহাম্মদ বলেন, ‘আমাদের নিজ নিজ জায়গায় বদলে যেতে হবে। তাহলেই বদলে যাবে বাংলাদেশ। আমাদের সবাইকে দেশ সেবার ব্রত নিতে হবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রামেকের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাসুম হাবিব। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ডা. তাবিবুর রহমান শেখ, রামেকের উপাধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মহিবুল হাসান, ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান একেএম শোয়েব, ইউনিমেড ইউনিহেলথের নির্বাহী পরিচালক নাজমুল হাসান।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশন বাংলাদেশের কো চেয়ারম্যান এম আলমগীর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা রামেকের ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।

দুপুরের পর বিতর্ক উৎসবে জঙ্গিবাদ, স্বাস্থ ও শিক্ষা, সাম্প্রতিক, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়বস্তু নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। মৃত্যু ভয়কে জয় করা ফারাজ আইয়াজের মানবিক মূল্যবোধের দৃষ্টান্ত দেশের তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের ৭০টি বিতর্ক দল ও ৪০টি কুইজ প্রতিযোগী দল এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। শনিবার পুরস্কার বিতরণের মধ্যে দিয়ে আয়োজন শেষ করার কথা রয়েছে।