রাজনৈতিক দলগুলোতে নারী নেতৃত্বের হার এখনো ১০ শতাংশের নিচে

1

সাইদ রিপন : আইন বিলুপ্ত না করে সময় বাড়ানোর পরামর্শ। ২০০৮ সালে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধনের সময় রাজনৈতিক দলগুলোতে নারী নেতৃত্বের সর্বোচ্চ হার ছিল ১০ শতাংশ। ওই সময় আইন করা হয়, ২০২০ সালের মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোতে নারী নেতৃত্বের হার ৩৩ শতাংশে উন্নীত করতে হবে। ওই আইন অনুযায়ি, এই সময়ে ৩৩ শতাংশ নারীর কোটা পূরণ না হলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিএনপিসহ বেশিরভাগ দলের নিবন্ধনই বাতিল করতে হবে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সেলিমা আহমাদ এমপি বলেন, আমার মতে, দলগুলো এ কোটা পূরণে আরও সময় বাড়িয়ে টার্গেট দেওয়া উচিত। এছাড়া জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে নারীদের অংশগ্রহণ আরও বেশি প্রয়োজন। তাহলে কেন্দ্র পর্যায়ে নারী নেতৃত্ব কমবে না বরং বাড়বে।

বিএনপি এমপি রুমিন ফারহানা বলেন, করোনার এ পরিস্থিতিতে আইন পরিবর্তনের উদ্যোগ না নিয়ে আরও সময় বাড়ানো উচিত। যদি আইনটি পরিবর্তন করা হয় তাহলে নারীদের রাজনীতিতে নিরুৎসাহিত করা হবে। এজন্য কঠিন শর্ত আরোপ করে সময় আরও বাড়িয়ে দিতে হবে।

এ বিষয়ে ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, আলোচনা করার মাধ্যমে নতুন আইনে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন শর্তাবলী সংযোজন বা বিয়োজন করা হবে। আগামীতে পর্যায়ক্রমে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন। আমাদের সময়.কম