মংলায় ঠিকাদার খোকা খুন হয়েছে নাকি দুর্ঘটনায় নিহত, নানা গুঞ্জন। পালিয়েছে তপন

মংলা অফিসঃ ঠিকাদাার খোকা তালুকদার খুন হয়েছে নাকি মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে তা নিয়ে শহর জুড়ে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। নিহতের পরিবারের দাবী প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে ব্যবসায়ীক কারণে পরিকল্পিতভাবে খুন করে মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এদিকে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদঘাটনে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।
নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, মংলার দিগরাজ এলাকার ঠিকাদার খোকা তালুকদারকে (৪২) বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই এলাকার তপন ঘোষ ও নাজমুল হোসেন। পরে রাত গভীর হতে থাকলে বাড়িতে না ফেরায় পরিবারের লোকজন ফোন করলে খোকা বিপদের মধ্যে আছে বলে জানায় পরিবারকে। এর পর পরই খোকার সঙ্গে থাকা তপন ও নাজমুল খোকার পরিবারকে ফোনে জানায় যে খোকা মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছে। তবে খোকার পরিবারের দাবী তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তবে এলাকাবাসীরাও বলছে খোকাকে হত্যা করা হয়েছে। তার মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। এক হাত ও দুই পা ভাঙ্গাসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে জখম রয়েছে। তবে মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় খোকা মারা গেছে বলে প্রতিপক্ষ অপপ্রচার করছে বলেও দাবী খোকার স্ত্রী কোহিনুর ও বড় মেয়ে শিউলির। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, যে মটর সাইকেলটির দুর্ঘটনার কথা বলা হচ্ছে সেই গাড়ীটিও রয়েছে অক্ষত। গাড়ীটির কোথাও কোন দুর্ঘটনা ঘটনার চিহ্ন নেই। এলাকাবাসী আরো জানান, ঘটনার পর তপন গোপালগঞ্জে আর নাজমুল খুলনা পালিয়ে গেছে। তারা আরো বলেন, যদি মটর সাইকেল দুর্ঘটনাই হবে তাহলে সাথে থাকা তপন পালিয়ে গোপালগঞ্জ গেল কেন।
এ বিষয়ে মংলা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ লুৎফুর রহমান বলেন, ঠিকাদার খোকার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদঘাটনে কাজ শুরু করেছে পুলিশ। ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে প্রাথমিকভাবে এটি দুর্ঘটনা বলে মনে হচ্ছে।