যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়েছে

10

রফিকুল ইসলাম সুজনঃ যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়েছে। বিশ্ব জুড়ে করোনায় মৃত্যুর মিছিল সাড়ে তিন লাখের কাছে পৌঁছেছে।এর পরেই ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। দেশটিতে মৃত্যু সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ব্রাজিল থেকে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে ইউরোপ ইউনিয়নের অনেক দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। কমতে শুরু করায় ইতালী, ফ্রান্স, গ্রীসসহ ইউরোপের কয়েকটি দেশ লকডাউন শিথিল করেছে। তবে নাগরিকদের সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে কিছু বাধ্যকতা রাখা হয়েছে। পড়তে হবে মাস্ক । সংক্রামন দ্রুতগতিতে বেড়ে চলছে আর এক পরাশক্তি রাশিয়া। আগামী ৩০ মে মক্কা বাদে দেশের সকল মসজিদ খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সৌদী সরকার। দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারত ও বাংলাদেশেও সংক্রামণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ভারতে সীমিত আকারে আভ্যন্তরিন রুটে বিমান চালু করেছে। তবে প্রথম দিনে বিমানবন্দরের দুই কাস্টম সদস্যের করোনা পজেটিভ হয়েছে।

বিভিন্ন দেশের লকডাউন শিথিলে সংক্রমণ বাড়তে পারে বলে আশংকা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
চীনের উহান রাজ্যে গত ডিসেম্বরে এই ভাইরাসটির সংক্রমণ শুরু হয়।তারপর একে একে ছড়িয়ে বিশ্বের ১১৩ টি দেশ ও অঞ্চলে। এখনও এই ভাইরাসের কোন ঔষধ আবিস্কার হয়নি। তবে জাপান, চীন, আমেরিকা, কানাডা, ইতালী, কিউবা টিকা আবিস্কারে অনেক দূর এগিয়েছে বলে জানাগেছে। বাংলাদেশও টিকা আবিস্কারে কাজ করছে।
বিশ্বে আজকে পর্যন্ত আক্রান্ত ৫৬ লাখ ১৩ হাজার ১৫৬ জন । সারাবিশ্ব এর মধ্যে মৃত্যু ৩ লাখ ৪৮ হাজার ৫২৮ জন । সুস্থ হয়েছে ২৩ লাখ ৮৮ হাজার ৬৭৭ জন। উৎপত্তি দেশ চীনে আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় কমলেও উৎপত্তিস্থল উহানে ফের সংক্রামন দেখা দিয়েছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩৪ জন। যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু ১ লাখ ৩০ জন ।দেশটিতে আক্রান্ত ১৭ লাখ ৩০০ জন। যুক্তরাজ্যে মৃত্যু সংখ্যা কমেছে। এ পর্যন্ত দেশটিতে ৩৬ হাজার ৯১৪ জন। কানাডায় মৃত্যু ৬ হাজার ৫৪৫ জন। রাশিয়ায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৬৩৩ জনের। স্পেনে মৃত্যু ২৮ হাজার ৮৩৭ জন । ফ্রান্সে মৃত্যু ২৮ হাজার ৪৩২ জন। ইরানে এ পর্যন্ত মৃত্যু ৭ হাজার ৪৫১ জন। ব্রাজিলে মৃত্যু ২৩ হাজার ৫২২ জন। নেদারল্যান্ডে মৃত্যু ৫ হাজার ৮৩০ জন। ম্যাক্সিকোতো মৃত্যুর সংখ্যা ৭ হাজার ৭৩৩ জন। সৌদী আরবে মৃত্যু ৩৯৯ জন। মালয়েশিয়ায় আক্রান্ত ও মৃত্যু কমে যাওয়ায় লকডাউন তুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। দেশটিতে মৃত্যু ১১৫ জন। পাকিস্তানে মৃত্যু ১ হাজার ১৬৭ জন। ভারত ও বাংলাদেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। ভারতে মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ১৮৭ জন। বাংলাদেশে আক্রান্ত ৩৬ হাজার ৭৫১ জন। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত মৃত্যু ৫২২ জন।