বিএফইউজের নির্বাচনে ‘কোনো বাধা নেই’

যুগবার্তা ডেস্কঃ বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি পদে উপনির্বাচন স্থগিত করে চট্টগ্রাম প্রথম শ্রম আদালত এর দেয়া আদেশ স্থগিত করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। ফলে শুক্রবার নির্ধারিত দিনে এই উপনির্বাচন অনুষ্ঠানে আর কোনো বাধা থাকল না জানিয়েছেন রিটকারীর আইনজীবী।
এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আজ বৃহস্পতিবার রিটকারীর পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন।
এর আগে ২০১৫ সালের বিএফইউজে সভাপতি ২৭ নভেম্বর বিএফইউজের দুই বছর মেয়াদী কমিটিতে সভাপতি পদে আলতাফ মাহমুদ নির্বাচিত হন। চলতি বছর ২৪ জানুয়ারি তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তাই সংগঠনটির সভাপতি পদে উপনির্বাচনের জন্য ২৬ জুন তফসিল ঘোষণা করা হয়। যেখানে ২৯ জুলাই সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের নির্ধারণ করা হয়।
ভোটার তালিকায় কক্সবাজারের ১০ জন সাংবাদিকের নাম না থাকায় উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে কক্সবাজারের দুই সাংবাদিক মোরশেদ রহমান ও সাঈদ আলমগীর আবেদন করেন। ২০১৫ সালের ২৪ নভেম্বর করা মামলায়ই এক আবেদনে এই স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ভোট গ্রহণের মাত্র ৫ দিন আগে চট্টগ্রাম প্রথম শ্রম আদালতের চেয়ারম্যান কাজী শাহিনা নিগার নির্বাচনের ওপর স্থগিতাদেশ দেন।
শ্রম আদালতের সেই আদেশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আবু তাহের গত ২৭ জুলাই বুধবার হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। সেই আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে হাইকোর্ট চট্টগ্রাম শ্রম আদালতের আদেশ তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন।
বিএফইউজের উপনির্বাচনে সভাপতি পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- বিএফইউজের সাবেক সভাপতি ও একুশে টেলিভিশনের সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, সাবেক মহাসচিব ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারর সাংবাদিক আবদুল জলিল ভূঁইয়া ও বৈশাখী টেলিভিশনের অশোক চৌধুরী।