“বাস দুর্ঘটনায় সদ্য প্রয়াত এতিম রাজীবের পরিবারের দায়িত্ব নিলেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী”

যুগবার্তা ডেস্কঃ সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাসের চাপায় হাত হারানো সদ্য প্রয়াত রাজীব হোসেনের অসহায় দুই এতিম ভাইয়ের দায়িত্ব তুলে নিলেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি। আজ বুধবার দুপুরে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে সমাজকল্যাণমন্ত্রী জানান –সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নেই কেবল কাজ করে না, এই মন্ত্রণালয় সমাজের অবহেলিত, বঞ্চিত, আর্থিকভাবে অসহায় মানুষের কল্যাণেও কাজ করে থাকে। এরই প্রেক্ষিতে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় দেশব্যাপী আলোচিত সড়ক দুর্ঘটনায় হাত হারানো রাজীব হোসেন এর অসহায় পরিবারের এতিম দুই ভাই আব্দুল্লাহ ও মেহেদীর পড়ালেখা থেকে শুরু করে নানা ধরণের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে কর্মদক্ষতা করে গড়ে তোলার দায়িত্ব নেন। এর পাশাপাশি মন্ত্রী রাজীবের মরদেহের সৎকার করার জন্য রাজীবের মামা ও খালার নিকট নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।

সংবাদ সম্মেলনে সমাজকল্যাণমন্ত্রী কোহিনুর বেগম নামে আরেকটি অসহায় পরিবারের দুদর্শা চিত্র তুলে ধরেন। মন্ত্রী বলেন, “গত ৬ এপ্রিল, দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায়, সাংবাদিক, কথাসাহিত্যিক, নাট্যকার ও কলাম লেখক জনাব আনিসুল হক এর ‘মানুষের গল্প ফুটপাতের মেয়েটি’ শিরোনামে একটি লেখা প্রকাশিত হয়। লেখাটিতে শারীরিক প্রতিবন্ধী কোহিনুর বেগম এবং তার মেয়ের ফুটপাতে অসহায় জীবন যাপনের গল্প বলা হয়। লেখাটি আমার নজরে আসে । তাৎক্ষিনকভাবে কোহিনূর বেগমকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক পরিচালিত সেবা বেষ্টনীর আওতায় আনার নির্দেশনা প্রদান করি। নির্দেশনা অনুযায়ী সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ নুরুল কবিরের নেতৃত্বে ২৪ ঘন্টার মধ্যে কোহিনুর বেগমকে প্রতিবন্ধী ভাতা বই হস্থান্তর করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় আজ কোহিনুর বেগমকে প্রতিবন্ধী ভাতা বই হস্থান্তর করা হচ্ছে।”

সংবাদ সম্মেলনে মাননীয় সমাজকল্যাণমন্ত্রীর সাথে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জনাব খন্দকার আতিয়ার রহমান ও সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক গাজী মুহাম্মদ নুরুল কবীরসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন ।