বানারীপাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় পঙ্গু দম্পতি গুরুতর আহত

রাহাদ সুমন,বিশেষ প্রতিনিধি॥ বরিশালের বানারীপাড়ায় মাদারকাঠি গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সড়ক দূর্ঘটনায় পঙ্গুত্ব বরণকারী সৈয়দ তাহের আলী (৫৫) ও তার স্ত্রী জয়নব বিবিকে (৪৫) বেধরক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সৈয়দ তাহের আলী বাদী হয়ে তার ভাতিজা সৈয়দ আনিসুজ্জামান সোহেল (৪০),ভাতিজার স্ত্রী মোসাম্মৎ সুমী (৩৫) ও ভাই সৈয়দ মোহাম্মদ আলীকে (৬০) আসামী করে বানারীপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। বানারীপাড়া থানা পুলিশ ৪ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে মাদারকাঠি গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আসামী সৈয়দ আনিসুজ্জাম সোহেলকে গ্রেফতার করে বরিশালে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। ৬ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার বাদী আহত সৈয়দ তাহের আলী অভিযোগ করেন অপর দুই আসামী সোহেলের স্ত্রী মোসাম্মৎ সুমী ও সৈয়দ মোহাম্মদ আলী জামিনে বের হয়ে প্রকৃত ঘটনা আড়াল করে মামলার মোটিভ ভিন্ন খাতে প্রবাহিত ও আসামী সৈয়দ আনিসুজ্জামান সোহেলকে জামিনে মুক্ত করতে নানা অপতৎপরতা ও অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে। মামলা করার পর থেকে তিনি ও তার পরিবার আবারও হামলার আশংকায় নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলেও জানান। মামলা সূত্রে জানা গেছে উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের মাদারকাঠি গ্রামে জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে গত শনিবার বিকেলে বন বিভাগের সাবেক কর্মচারী সৈয়দ তাহের আলীর বসত ঘরের সামনে গিয়ে ভাতিজা সৈয়দ আনিসুজ্জামান সোহেলসহ অপর আসামীরা অকথ্য ভাষায় গালাগাল শুরু করেন। এর প্রতিবাদ করায় তারা সৈয়দ তাহের আলীর ওপর লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে বেধরক পিটিয়ে তাকে আহত করে। এসময় স্বামীকে রক্ষা করতে গেলে তার স্ত্রী জয়নব বিবিকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এছাড়া তার কানের দুল ছিনিয়ে নেওয়া ও শ্লীলতাহানী করা হয় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে গত কয়েকদিন চিকিৎসার পরে তারা বর্তমানে নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধিন রয়েছেন। এ ব্যপারে সৈয়দ তাহের আলী বাদী হয়ে গত ১ অক্টোবর শনিবার বানারীপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। উল্লেখ্য,গত কয়েক বছর পূর্বে ভোলায় এক সড়ক দূর্ঘটনায় সৈয়দ তাহের আলী ও তার স্ত্রী গুরুতর আহত হন। সেই থেকে ক্রেস ভর করে সৈয়দ তাহের আলী চলাফেরা করেন। সড়ক দূর্ঘটনায় পঙ্গু এ দম্পতির ওপর হামলার ঘটনায় স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ৬ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে সৈয়দ আনিসুজ্জামান সোহেলের মাদারকাঠি গ্রামের বাড়িতে গিয়ে কাউকে না পাওয়ায় এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। এ প্রসঙ্গে বানারীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) এসএম মাসুদ আলম চৌধুরী বলেন এ ঘটনায় ইতোমধ্যে মামলা নিয়ে একজন আসামীকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। তদন্তপূর্বক পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।