বরিশাল ও বরগুনার ডিসি প্রত্যাহার

যুগবার্তা ডেস্কঃ বরিশালের জেলা প্রশাসক গাজী মো. সাইফুজ্জামান ও বরগুনার জেলা প্রশাসক বশিরুল আলমকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এপিবি) শেখ ইউসুফ হারুন সমকালকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানায়, বরগুনার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমনের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুই জেলা প্রশাসককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পাবনা জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোখলেছুর রহমানকে বরগুনায় এবং সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব হাবিবুর রহমানকে বরিশালে জেলা প্রশাসক করা হয়েছে।

এর আগে ইউএনও গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মানহানি মামলার জের ধরে তাকে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় আইনের কোনো ব্যত্যয় হয়েছে কি না সেটা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ কথা জানান।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্রে বঙ্গবন্ধুর ‘বিকৃত ছবি’ ছাপানোর অভিযোগ এনে গত ৭ জুন আগৈলঝাড়ার সাবেক ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক (বর্তমানে সাময়িক বহিষ্কৃত) ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট ওবায়েদুল্লাহ সাজু। বরিশাল সিএমএম আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে সমন জারি করে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।

গত বুধবার দুপুরে ওই মামলায় বরিশাল সিএমএম আদালত থেকে জামিন পান বর্তমানে বরগুনার ইউএনও তারিক সালমন। এর আগে একই আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছিল।

এদিকে, ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে করা মানহানির মামলাটি রোববার প্রত্যাহার করেছেন বাদী ওবায়েদুল্লাহ সাজু। এর আগে গত শুক্রবার সাজুকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ।-সমকাল