প্রকাশ্য হস্তমৈথুনকে বৈধ করল ইতালি

যুগবার্তা ডেস্কঃ যৌন অপরাধ এবং শরীর সুস্থ রাখতে আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান এখন হস্তমৈথুনকে উৎসাহ দেয়। তবে পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশেই প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন নিষিদ্ধ। কিছু রাষ্ট্র তো হস্তমৈথুনকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করে।
কিন্তু বিশ্বে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করল ইতালি। দেশটিতে শর্তসাপেক্ষে প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন এখন আইনসিদ্ধ!
ইতালিই সম্ভবত পৃথিবীর প্রথম দেশ, যেখানে ‘পাবলিকলি হস্তমৈথুন’কে কার্যত আইনি স্বীকৃতি দেওয়া হল।
ইতালির সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়েছেম কোনো ব্যক্তি যদি রাস্তায় জনসমক্ষে হস্তমৈথুন করেন এবং সেখানে যদি কোনও শিশু না থাকে তাহলে সেটা কখনই আইনত অপরাধ বলে গণ্য করা হবে না এবং এর জন্য প্রশাসন কোনও শাস্তি প্রদান করতে পারবে না।
২০১৫ সালে ইতালির কাতানিয়া শহরে ৬৯ বছরের এক ব্যক্তি ‘জনসমক্ষে হস্তমৈথুন’ করতে গিয়ে ধরা পরেন। তাকে গ্রেফতারও করে পুলিশ।
এর পরই শুরু হয় আইনি প্রক্রিয়া। গোটা বিষয়টি আদালতের নজরে আসে।
দীর্ঘদিন যুক্তি তর্কের পর ‘জনসমক্ষে হস্তমৈথুন’কে আইনি স্বীকৃতি দেয় আদালত।
তবে ওই ব্যক্তি যেহেতু একটি শিশুর সন্মুখে হস্তমৈথুন করার সময় ধরা পরেছিলেন তাই আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করে এবং তার সাজা হয়।
তার একমাসের জেল ও আর্থিক জরিমানা করেছে রাষ্ট্র।
যৌন অপরাধ এবং শরীর সুস্থ রাখতে আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান এখন হস্তমৈথুনকে উৎসাহ দেয়। তবে পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশেই প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন নিষিদ্ধ। কিছু রাষ্ট্র তো হস্তমৈথুনকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করে।
কিন্তু বিশ্বে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করল ইতালি। দেশটিতে শর্তসাপেক্ষে প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন এখন আইনসিদ্ধ!
ইতালিই সম্ভবত পৃথিবীর প্রথম দেশ, যেখানে ‘পাবলিকলি হস্তমৈথুন’কে কার্যত আইনি স্বীকৃতি দেওয়া হল।
ইতালির সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়েছেম কোনো ব্যক্তি যদি রাস্তায় জনসমক্ষে হস্তমৈথুন করেন এবং সেখানে যদি কোনও শিশু না থাকে তাহলে সেটা কখনই আইনত অপরাধ বলে গণ্য করা হবে না এবং এর জন্য প্রশাসন কোনও শাস্তি প্রদান করতে পারবে না।
২০১৫ সালে ইতালির কাতানিয়া শহরে ৬৯ বছরের এক ব্যক্তি ‘জনসমক্ষে হস্তমৈথুন’ করতে গিয়ে ধরা পরেন। তাকে গ্রেফতারও করে পুলিশ।
এর পরই শুরু হয় আইনি প্রক্রিয়া। গোটা বিষয়টি আদালতের নজরে আসে।
দীর্ঘদিন যুক্তি তর্কের পর ‘জনসমক্ষে হস্তমৈথুন’কে আইনি স্বীকৃতি দেয় আদালত।
তবে ওই ব্যক্তি যেহেতু একটি শিশুর সন্মুখে হস্তমৈথুন করার সময় ধরা পরেছিলেন তাই আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করে এবং তার সাজা হয়। তার একমাসের জেল ও আর্থিক জরিমানা করেছে রাষ্ট্র।