পিরোজপুরের লঞ্চ ঘাট থেকে ঢাকা গামী লঞ্চে শত শত যাত্রী, মানছেনা কেউ স্বাস্থ্য বিধি

2

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ ঈদ উৎসব শেষে শহর বন্দর গ্রাম ছেড়ে কর্মস্থলে ফিরেই অফিস করবেন, এমন বাস্তবতা নিয়েই রবি ও সোমবার থেকে শত শত মানুষ পিরোজপুর ছেড়ে বিভিন্ন বাহনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রওনা হয়েছেন। জেলার হুলারহাট লঞ্চ ঘাট, বেকুটিয়া লঞ্চ ঘাট, তুষখালী, বড় মাছুয়া ভান্ডারিয়া ও কাউখালীসহ বেশ কিছু ঘাট থেকে ঝুঁকি নিয়ে এসব লঞ্চে চড়ে গন্তব্যে রওনা হয়েছেন। কিন্তু এসব যাত্রীদের কেউই নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় না রেখেই ঠাসাঠাসি করে চড়া মূল্যে টিকিট কেটে ভোগান্তি নিয়ে পাড়ি জমাচ্ছেন গন্তব্যে।
সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হুলারহাট থেকে নৌপথে লঞ্চ চলাচলের দ্বিতীয় দিনেও লঞ্চ ঘাটে উপচে পড়া যাত্রীদের ভিড়। মানছে কেউ স্বাস্থ্য বিধি। অনেকেরই মাস্ক নেই, সামাজিক দূরত্ব তো দূরের কথা ঘা ঘোষা ঘেষি করে শত শত যাত্রী ঢাকার উদ্দেশ্যে লঞ্চে উঠে পরেছে। এসময় কোন লঞ্চে স্যানিটাইজেশনের কোন ব্যবস্থা দেখা যায়নি। যাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়েই জীবন জীবিকার তাগিদে ঢাকা ও চট্টগ্রামে উদ্দেশ্যে লঞ্চে উঠে পরছে। কাউখালী লঞ্চ ঘাট থেকে সোমবার বিকেলে ৩টি লঞ্চ ছেড়ে যায়। এর মধ্যে এম ভি ঈগল-৮, যুবরাজ-৭, এম ভি রেড সান। প্রত্যেটি লঞ্চেই সমাজিক দূরত্ব না রেখেই ডেকে যাত্রী বোঝাই করে ছেড়ে গেছে। সেই সঙ্গে যাত্রীদের সঙ্গেও অসদাচরন করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।