পিরোজপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাটির রাস্তাগুলোর বেহাল দশা ॥ জনদূর্ভোগ চরম

10

হাসান মামুন, পিরোজপুরঃ জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থা চরম বিপর্যস্ত। জেলার কাউখালী উপজেলার সদর থেকে একটু দূরে বিধায় শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ৮০ ভাগ রাস্তাই কাঁদা মাটির ˆতৈরি যাহা বেশির ভাগই খানাখন্দে ভরা। সাধারণ মানুষের চলাচলে চরম দূভোগ পোহাতে হচ্ছে। রাস্তাগুলো হচ্ছে উপজেলার শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ফলইবুনিয়া গ্রামের পাঙ্গাসিয়া বাজার সংলগ্ন কারিকরের খাল হইতে জোলাগাতি মোল্লার হাট রাস্তা, ফলইবুনিয়ার মোক্তার সিকদারের বাড়ি হইতে পশ্চিম ফলইবুনিয়া ইবতেদায়ী মাদ্রাসা হইয়া সাপলেজা মোকলেজ মাষ্টারের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা, সাপলেজা জয়তুনিয়া দাখিল মাদ্রাসা হইতে মোকলেজ মাষ্টারের বাড়ি হইয়া জোলাগাতি মালবাড়ি জামে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তা, ফলইবুনিয়া চেয়ারম্যান বাড়ি হইতে মধ্য জোলাগাতী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তা, দক্ষিণ জোলাগাতি মিরাবাড়ি হইতে বেলায়েতের মাদ্রাসা হইয়া জোলাগাতি পাটগুদি জোলাগাতি খন্দকার বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা, ফলইবুনিয়া সাপলেজা খালের ভেরীবাদ হইতে গাজী বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা দরগা বাড়ি হইতে লক্ষণ মিস্ত্রির বাড়ি হইয়া সাপলেজা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তা, তালুকদার হাট হইতে জোলাগাতি মাদ্রাসা হইয়া ফলইবুনিয়া চেয়ারম্যান বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা, জোলাগাতি মাদ্রাসা হইতে সেপাই বাড়ি ব্রীজ হইয়া মোশারফ মেম্বারের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা, মোল্লাবাড়ি স্কুল হইতে নজরুল ইসলামের বাড়ি হইয়া বেলতলা পোল পর্যন্ত রাস্তা এবং পাঙ্গাসিয়া হাওলাদার বাজার হইতে কাছারিখাল পর্যন্ত রাস্তা। এই ছাড়াও এই ইউনিয়নের আরও অনেক ছোটখাটো মাটির রাস্তা রয়েছে যা আজও উন্নয়নের কোন ছোয়া লাগেনি। এ সকল রাস্তাগুলো দীর্ঘ সময় ধরে কোন প্রকার সংস্কার বা পাকা করনের কোন উদ্দ্যোগ গ্রহণ না করায় রাস্তাগুলো চলাচলের এখন অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। অধীকাংশ রাস্তা খানাখন্দ এবং বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এই ইউনিয়নটি কচাঁ নদীর তীরবর্তী হওয়ায় জোয়াড়ের পানি ও বন্যার তোড়ে রাস্তার মাটির উপরি অংশের মাটি সরে গিয়ে বড় বড় খালে পরিনত হয়ে গেছে। এ সব রাস্তার মাঝে মাঝে যে সকল ছোট ছোট খালের উপর উপযুক্ত কোন সাঁকোর কোন ব্যবস্থা নেই। স্থানীয়রা বাঁশ, সুপারি গাছ দিয়ে কোন মাতে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। এই সকল রাস্তা দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসা-বানিজ্যের জন্য সকল শ্রেনীর সকল পেশার মানুষ জীবন জীবিকার জন্য যাতায়াত করে। এছাড়াও উপজেলার আর ৪টি ইউনিয়নেও মাটির রাস্তাগুলোর অবস্থাও বেহাল দশা। এ ব্যাপারে শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিকদার মোঃ দেলোয়ার জানান উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নের ভিতর আমাদের ইউনিয়নের মাটির রাস্তা বেশি, পর্যায়ক্রমে সকল রাস্তা পাঁকা করণের ব্যবস্থা করা হবে।