নিরীহ মানুষকে গায়েবী মামলায় ফাঁসিয়ে সরকার ভয়ের রাজত্ব কায়েম করেছে

যুগবার্তা ডেস্কঃ সিপিবি’র প্রাক্তন সভাপতি কমরেড মনজুরুল আহসান খান বলেছেন, বিনা ভোটের সরকার তার শাসন টিকিয়ে রাখতে জনগণকে ভীতির কাছে জিম্মি করতে চায়। তাই নিরীহ মানুষকে গায়েবী মামলায় ফাঁসিয়ে তারা দেশে ভয়ের রাজত্ব কায়েম করেছে। সিপিবি সংগঠক ড্রাইভার হোসেন আলীর মুক্তির মানববন্ধনে এ কথা বলেন তিনি।

আজ বেলা ১১টায় রাজধানীর শান্তিনগর বাজার সংলগ্ন সড়কে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শ্রমিকনেতা হযরত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন, দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক জলি তালুকদার, পল্টন থানা কমিটির সভাপতি মুর্শিকুল ইসলাম শিমুল, সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব সাহা, শান্তিনগর শাখার সম্পাদক মঞ্জুর মঈন, নারী নেত্রী রাশেদা কুদ্দুস রানু, শ্রমিকনেতা ইয়াসিন স্বপন, তৌফিকুল ইসলাম, যুবনেতা জাহিদ নগর, ছাত্র ইউনিয়ন পল্টন থানা কমিটির সভাপতি বিল্লাল হোসেন প্রমুখ।

মনজুরুল আহসান বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের নামে তার ওপরে কোনো ধরনের শারীরিক নির্যাতন করা হলে পুলিশকে ক্ষামা করা হবে না। তিনি আরও বলেন, কোনো ˆস্বরাচারই চিরস্থায়ী হয়নি। এদেশের প্রতিবাদী মানুষকে ভীতি ও আতংগ্রস্থ করে দাবিয়ে রাখা যাবে না।

উল্লেখ্য, শান্তিনগরের বাসিন্দা হোসেন আলী একজন ভাড়ায় চালিত মাইক্রোবাস চালক। গত ৮ এপ্রিল কয়েকজন ব্যাংক কর্মকর্তা তার গাড়ি ভাড়া নিয়ে ঢাকা ইপিজেডে কারখানা পরিদর্শনে যান। গাড়ি পার্কিং সংলগ্ন এলাকায় আগে থেকেই চলমান শ্রমিক অসন্তোষকে কেন্দ্র করে সমবেত শ্রমিকদের জটলায় কৌতুহলবশত তিনি শ্রমিকদের সাথে কথা বলেন। তার পরিহিত টি-শার্টে ‘শ্রম শক্তিই ভবিষ্যৎ’ কথাটি লেখা ছিল। যে টি-শার্টটিতে ঢাকাস্থ জামালপুরবাসী ড্রাইভারদের একটি সমিতির নাম অংকিত ছিল। সেখান থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে ভয়ংকর সন্ত্রাসী এবং নাশকতাকারী হিসেবে পুরাতন একটি গায়েবী মামলায় তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে। আজ তার চলমান রিমান্ডের শেষ দিন।

মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শান্তিনগর এলাকার প্রধান সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে।