নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে বাংলাদেশ ভারত লড়াই আজ

যুগবার্তা ডেস্কঃ শ্রীলংকায় ত্রিদেশীয় টি ২০ সিরিজ নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে ভারতের সাথে লড়াইয়ে নামছে বাংলাদেশের টাইগাররা। আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে এই শিরোপা লড়াই শুরু হবে।গোটা ক্রিকেট প্রেমিরা ফাইনালের লড়াই দেখার অপেক্ষায়।

শুক্রবার শ্রীলংকার বিপক্ষে অলিখিত সেমিফাইনালে রূপ নেয়া প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচের শেষ ওভারে মাঠ ও মাঠের বাইরে যে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল, তা ছাড়িয়ে গেছে আগের সবকিছুই। এবার ভারত ও ফাইনাল-জুজু কাটাতে প্রস্তুত সাকিবরা।

এর আগে এশিয়া কাপ ও ত্রিদেশীয় সিরিজ মিলিয়ে যতবারই ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ, প্রতিবারই পুড়তে হয়েছে স্বপ্নভঙ্গের হতাশায়। ঢাকায় ২০১৬ এশিয়া কাপের ফাইনালে এই ভারতই ছিল বাংলাদেশের ঘাতক। ওই বছরই বাঙ্গালোরে টি ২০ বিশ্বকাপের ম্যাচে ভারতের কাছে এক রানের সেই অবিশ্বাস্য হারের দুঃস্মৃতি আজও তাড়া করে টাইগারদের।

এবার নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচে প্রায় একই ধরনের পরিস্থিতিতে তীব্র স্নায়ুচাপ সামলে দলকে জিতিয়ে বাঙ্গালোর ব্যর্থতার প্রায়শ্চিত্ত করে ফেলেছেন মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়ক সাকিবের নাটকীয় প্রত্যাবর্তনে আরও উজ্জীবিত দল।

নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে জিততে পারলে আরো বড় বোনাস অপেক্ষা করছে সাকিব-তামিমদের জন্য। তবে ভারতকে হারাতে বাড়তি প্রেরণার প্রয়োজন নেই বাংলাদেশ দলের। বাংলাদেশ যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তাতে ভারতও আজ চাপে থাকবে। প্রাথমিক পর্বে অবশ্য দু’বার বাংলাদেশকে হারিয়েছে তারা। কোহলি-ধোনিদের মতো মূল খেলোয়াড়দের ছাড়াই টানা তিন ম্যাচ জিতে ফেভারিটের মতোই ফাইনালে উঠেছে ভারত।

গত কয়েক বছরে বাংলাদেশ-ভারত দ্বৈরথ যে নতুন রূপ নিয়েছে, তাতে নির্ভার থাকতে পারছেন না দিনেশ কার্তিক। শনিবার কলম্বোয় ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা ভারতের এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান জানালেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে এখন যেকোনো ম্যাচই কঠিন। কারণটাও ব্যাখ্যা করেছেন কার্তিক, ‘উপমহাদেশের কন্ডিশনে বাংলাদেশ এখন খুবই ভালো দল।