নজিরবিহীন বন্যা পরিস্থিতিতে দেশে বিপর্যয় সরকার নির্বিকার

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা মহানগর সংসদ শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে উত্তরাঞ্চলে বন্যা কবলিত এলাকায় সরকারি ত্রাণ দ্রুত সরবরাহের দাবিতে এবং সরকারি নতজানু পররাষ্ট্র নীতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা মহানগর সংসদের সভাপতি দীপক শীলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জহর লাল রায় সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি জিএম জিলানী শুভ, মহানগর সংসদের সহ-সভাপতি অন্তু চন্দ্র নাথ ও বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ।
জিএম জিলানী শুভ তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে প্রায় সব জেলাই বন্যা কবলিত হয়েছে। ৩৫ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে উল্লেখযোগ্য ত্রাণ সামগ্রী এখনও পৌঁছায়নি, যা খুবই দুঃখজনক। ছাত্র ইউনিয়ন যখন বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়াতে সাধারণ মানুষের কাছে শুকনো খাবার, ওষুধ, স্যালাইন, পোশাক, নগদ অর্থ সহযোগিতা নিচ্ছে তখন সরকারি পুলিশ বাহিনী বিভিন্ন জায়গায় বাধা প্রদান করছে।
সভাপতির বক্তব্যে দীপক শীল বলেন, শুকনো মৌসুমে তিস্তার ব্যারেজগুলো বন্ধ থাকে। আর বর্ষার মৌসুমে তিস্তার ব্যারেজগুলো খুলে দেওয়া হয়। যার ফলে আজ ৩৫ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্তের শিকার। আমরা মনে করি সরকারি নতজানু পররাষ্ট্র নীতির কারণে আজকে ভারতের এই স্বেচ্ছাচারী সিদ্ধান্তর প্রতিবাদ সরকার করতে পারছে না। সরকারিভাবে যেসকল ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে তা তুলনামূলক কম। আবার এর অনেকটা দলীয় লোক দ্বারা লুটপাট হয়ে যাচ্ছে। দীপক শীল হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, এই বানভাসি মানুষের দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে। অন্যথায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের সাথে নিয়ে তুমুল আন্দোলন গড়ে তুলন।