ধর্মান্ধদের সাথে সরকারের আপসের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

যুগবার্তা ডেস্কঃ শিক্ষাব্যবস্থা ও বাংলাদেশের ঐতিহ্য-সংস্কৃতির উপর মৌলবাদী আক্রমণ, অপপ্রচার ও ধর্মান্ধদের সাথে সরকারের আপসের প্রতিবাদে শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি নারী সেল ও সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।
বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় নারী সেলের আহ্বায়ক ও সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষ্মী চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে এবং সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী শম্পা বসুর পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শিক্ষাবিদ এ এন রাশেদা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় নারী সেলের নেত্রী অ্যাড. মাকসুদা আক্তার লাইলী, লুনা নূর, তাহমিনা ইয়াসমিন নীলা, শাহানারা বেগম, এবং সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য সামসুন্নাহার জোৎস্না, কিশোর ওয়াসেফা এথিনা, রুখসানা আফরোজ আশা প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তাগণ বলেন, এই সরকার নিজেদেরকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী বলে জাহির করে অথচ একের পর এক মৌলবাদীদের সাথে আপস রফার ব্যবস্থা করছে। এবছরের শুরুতেই হেফাজতে ইসলামের দাবি মেনে পাঠ্যপুস্তক থেকে প্রগতিশীল-অসাম্প্রদায়িক লেখক ও লেখাকে বাদ দেওয়া হয়েছে, কওমি মাদ্রাসার দাওরা-ই-হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান বলে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন এবং হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সামনে অবস্থিত জাস্টিসিয়া ভাস্কর্যের অপসারণ দাবি করেছে। প্রধানমন্ত্রী তাতে সায় দিয়েছেন। এর আগে হেফাজতে ইসলামের আমির শফি সাহেব মেয়েদেরকে তেতুলের সাথে তুলনা করেছিল আর এবার নারী নেতৃত্বের প্রতীক জাস্টিসিয়া ভাস্কর্যের অপসারণ দাবি করছে। প্রধানমন্ত্রী এই বক্তব্য তার নিজের অবস্থানকেও প্রশ্নবিদ্ধ করে।