দিনাজপুর পৌরসভার মেয়রের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

6

রংপুর অফিসঃ দিনাজপুর পৌরসভার কাউন্সিলররা অভিযোগ করেছেন, মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম তার সস্তা ভালোবাসা দেখিয়ে পৌরবাসীকে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে পৌঁছে দিয়েছে। আগামীতে পৌর মেয়র এ ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে তাহলে আমরা আন্দোলনসহ পৌর পরিষদ থেকে পদত্যাগের মত কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো।
আজ সোমবার সকাল সোয়া ১১ টায় দিনাজপুর পৌরসভার কাউন্সিলর মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেছেন কাউন্সিলররা।
তারা অভিযোগ করেন, বর্তমান ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতিতে দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম পৌরসভার সব রকম কার্যক্রম বন্ধ রেখে একক কর্তৃত্ব চালাচ্ছে।কাউন্সিলরদের সমস্যায় জর্জরিত করে পৌরবাসীর মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন,দিনাজপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র আবু তৈয়ব দুলাল। লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, করোনার এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে বার বার বলার পরও পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম কোন মিটিং ডাকেন না। গত তিন মাস যাবত পৌরসভার কোনো নিয়মিত মিটিং আহবান করেননি। যে কারণে পৌরবাসীর সমস্যা এবং সম্ভাবনা নিয়ে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা সম্ভব হয়নি।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলমের সহযোগিতা ছাড়াই কাউন্সিলররা ব্যক্তিগত উদ্যোগে করোনা সমস্যায় জর্জরিত মানুষের জন্য নিজেদের ২ মাসের সন্মানী ভাতা এবং তিন মাসের সাহায্যের অনুদানের সমুদয় অর্থ দিয়ে ৮০ টন চাল কিনে লক ডাউনের আওতায় ক্ষতিগ্রস্ত দিনাজপুরের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার অসহায় মানুষের মাঝে বিতরণ করেছেন। এ ব্যাপারে পৌর মেয়রের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইলে তিনি একটি টাকাও দেবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, পৌর মেয়র নিজে সরকারী প্রশাসনের বিভিন্ন ত্রাণ-অনুদান, বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও বিত্তবান মানুষের কাছ যে ত্রাণগুলো নিয়েছেন সেগুলো কোথায় কিভাবে বিতরণ করা হয়েছে তা পৌরবাসীর কাছে দৃশ্যমান নয়। এ ব্যাপারে কাউন্সিলরদের একদম পুরোপুরি অন্ধকারে রেখে মেয়র তার স্বীয় স্বার্থ হাসিল করেছেন।
লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম পৌরসভায় চলমান এডিবি’র সকল কার্যক্রম বন্ধ রেখে অনিয়মের মাধ্যমে বিভিন্ন টেন্ডারের কার্যক্রম সম্পাদন করেছেন। মেয়র সর্বক্ষেত্রে নিজের ব্যর্থতাকে ঢাকতে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মিথ্যা তথ্য তুলে ধরে প্রশাসন এবং এলাকাভিত্তিক জনগণের কাছে কাউন্সিলরদের বিভিন্ন প্রশ্নের সম্মুখীন করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত কাউন্সিলররা সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানান, পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম তার সস্তা ভালোবাসা দেখিয়ে পৌরবাসীকে ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে পৌঁছে দিয়েছেন। আগামীতে যদি পৌর মেয়র এভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করেন, তাহলে আমরা আন্দোলনসহ পৌর পরিষদ থেকে পদত্যাগের মত কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো।
সংবাদ সম্মেলনে দিনাজপুর পৌরসভার কাউন্সিলর মোস্তফা কামাল মুক্তি বাবু, রেহাতুল ইসলাম খোকা, রোকেয়া বেগম লাইজু, মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, একেএম মাসুদুল ইসলাম মাসুদ, আশরাফুল আলম রমজান, মাসতুরা বেগম পুতুল, কাজী আকবর হোসেন অরেঞ্জ, সানোয়ার হোসেন, মাকসুদা পারভিন মিনা ও জাহাঙ্গীর আলম সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।