দলীয়ভাবে স্থানীয় সরকার নর্বিাচনে যা হবে

আরিফুর রহমান : বাংলাদেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে করার বিষয়ে সিন্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রিসভা। সরকারের এ পরিকল্পনায় আপত্তি জানিয়েছে বিএনপি। কিন্তু স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এ বিষয়টিকে কিভাবে দেখছেন।
এসব বিষয়ে বিবিসি বাংলার সাথে কথা বলেন বগুড়ার পেরুলিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ মন্ডল। তিনি বলেন, দলীয়ভাবে সরকার এটা করতে পারে কিন্তু আমরা এযাবত এ নির্বাচন করে আসছি স্থানীয়ভাবে। আমরা জানি স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়করণে হয়না। বাংলাদেশে সব মানুষতো দল করেনা। কিছু নিরপেক্ষ মানুষ থাকে।
এই সিন্ধান্তের ফলে কি ধরনের সমস্যা হবে এর জবাবে আব্দুল লতিফ মন্ডল বলেন, এখানে সমস্যা হল বাংলাদেশেতো দুটি দলই না অন্য দলও আছে। আবার নিরপেক্ষ কিছু লোক আছে যারা দলটল কিছু করেনা। তারা যখন নমিনেশন আনতে যাবে তখনতো বাণিজ্য করার মত হবে বলে আমার ধারণা। অবশ্য বাণিজ্য আগে থেকেই হয়ে আসছে।
কি ধরনের বাণিজ্য হবে এর জবাবে আব্দুল লতিফ মন্ডল বলেন, এটা মনে করেন আমি এখন দল করিনা। বয়স হয়ে গেছে দলে সম্পৃক্ত থাকতে পারি না। আমি শ্রমিক নেতা যখন কোন দলের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পারবোনা তখন চিন্তা হবে নির্দলীয় কিছু লোক নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে কিনা। বড় দুই দলে নমিনেশন নিতে গেলে বাণিজ্য হবে।
দলীয়ভাবে নির্বাচন হলে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সুযোগ কমবে কিনা এর জবাবে আব্দুল লতিফ মন্ডল বলেন, সুযোগ কোন যায়গায় কমে যাবে আবার কোথাও প্রভাব বেশি থাকবে।
দলীয়ভাবে নির্বাচন করলে তাদের এলাকার উন্নয়নের জন্য সুবিধা হবে কি না এর জবাবে আব্দুল লতিফ মন্ডল বলেন, সুবিধাজনক এক চুলও হবেনা। এমনিতেই চেয়ারম্যান, মেম্বারদের কাজই নাই। তারপরেও তারা কাজই করবেনা তাহলে জনগণের কোন কাজেই আসবেনা।
আব্দুল লতিফ আরও বলেন, এখন আমি চেয়ারম্যান হিসাবে কাজ করছি, আমি সমস্যার মধ্যে পড়ছি। মাঝেমধ্যে দলীয় প্রভাব খাটানোর চেষ্টা হয়। প্রতি ঈদের আগে গরিবের জন্য যে সমস্ত রিলিফের চাল আসে তা বিতরণের ক্ষেত্রেও দলীয় প্রভাব খাটানো হয়। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন তারাও প্রভাব খাটিয়েছে। আমি যদি ৩২’শ মানুষকে চাল দেয়ার সুযোগ পাইছি সেখানে বলে ৫’শ সিøপ আমাকে দিতে হবে। আমরা বলছি লোক নিয়ে আস চাল নাও কিš‘ তারা বলে সিøপই দিতে হবে। তারা সিøপ বেঁচে খাইছে। সব দলই এ কাজ করে। যারা ডাটের চেয়ারম্যান আছে তাদের সাথে এরকম করতে পারেনা। দলের নেতাতের প্রভাবের কারণে কাজে সমস্যা হবে।-সূত্রঃ আমাদের সময়.কম