জ্বালানি তেল ও সারের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয় যুব জোটের বিক্ষোভ মিছিল

স্টাফ রিপোটার: জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সহযোগী যুব সংগঠন জাতীয় যুব জোট কেন্দ্রীয় সংসদের উদ্যোগে আজ ৮ আগস্ট সোমবার, বিকাল ৫ টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ সামছুল ইসলাম সুমনের সঞ্চালনায় এ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শফি উদ্দিন মোল্লা, জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশ এর সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা সাইফুজ্জামান বাদশা, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর্জা মোঃ আনোয়ারুল হক, জাতীয় যুব জোটের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন, সহ-সভাপতি আমিনুল আজিম বনি, ইঞ্জিনিয়ার হারুন-অর-রশিদ সুমন, প্রদীপ কুমার রায়, শুভংকর দে বাপ্পা, ফজলুল কাদের, শ্রমিক নেত্রী শিরিন শিকদার, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (ন-মা) কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ আহমেদ প্রমূখ।

সমাবেশে বক্তারা রাষ্ট্রীয় অর্থ সম্পদ লুটপাট-দুর্নীতি-অপচয়-ভোগবিলাসের দায় জনগণের উপর না চাপিয়ে জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনার অভিঘাতের কারণে এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম এমনিতেই বেড়ে গেছে। এরইমধ্যে সার-ডিজেল-পেট্রোল-অকটেনের দাম বৃদ্ধি জনগণের কাছে ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’ এর সামিল। সার-ডিজেল-পেট্রোল-অকটেনের মূল্য বৃদ্ধির ফলে গণপরিবহণ, পণ্যপরিবহণ, কৃষি সেচসহ সামগ্রিক অর্থনীতি ও উৎপাদনে মারাত্মক নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলা করার মত ক্ষমতা এই মূহুর্তে জনগণের নেই। নেতৃবৃন্দ রাষ্ট্রীয় অর্থ সম্পদ লুটপাট-দুর্নীতি-অপচয়-ভোগবিলাস বন্ধ করে জ্বালানি তেল, সার ও নিত্যপণ্যের দাম মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, জিরো পয়েন্ট, পল্টন মোড়সহ নগরীর বিভিন্ন রাজপথ প্রদক্ষিণ করে।