জনগনের নিারাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য নিশ্চিত করতে চাই–খাদ্যমন্ত্রী

যুগবার্তা ডেস্কঃ খাদ্যমন্ত্রী জনাব সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, খাদ্যের অধিকার জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। দেশের প্রতিটি নাগরিক খাদ্য পাবার অধিকার রাখে। আর এটা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের কর্তব্য। দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। এখন আমরা জনগনের নিারাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য নিশ্চিত করতে চাই।

আজ সকালে “খাদ্য অধিকার বাংলাদেশ” এর উদ্যোগে ঢাকার সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত “বাংলাদেশের উন্নয়ন লক্ষ্য: খাদ্য অধিকার ও পুষ্টি অধিকার প্রসঙ্গ” শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে অর্থনৈতিক ও সামাজিক সহ বিভিন্ন সেক্টরে দৃশ্যমান উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। সময়ের পূর্বেই এমডিজির অন্যতম লক্ষ্য দারিদ্র্যের হার কমে আসার পাশাপাশি সামাজিক উন্নয়ন সূচকের বেশ কিছু ক্ষেত্রে অগ্রগতি সাধিত হচ্ছে। বিগত কয়েক বছর ধরে মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) ৬% এর উপরে অবস্থানের ধারাবাহিকতায় গত বছর থেকে ৭% এর উপরে অর্জিত হচ্ছে।

বিভিন্ন সেক্টরে সরকারের সাফল্যের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, দেশে খাদ্য শস্য উৎপাদনে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতির পাশাপাশি সামগ্রিকভাবে খাদ্য নিরাপত্তা, শিশুদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গমন, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের সমতা, নবজাতক ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু ও মাতৃমৃত্যু হার হ্রাস, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। তিনি বলেন, বিগত মার্চ মাসে জাতিসংঘ বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রাথমিক স্বীকৃতি প্রদান করেছে। এখন আমাদের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে উন্নীত হওয়া। এজন্য আপনাদের সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। তাহলে অচিরেই আমরা আমাদের কাংখিত লক্ষ্য অর্জনে সফল হবো

খাদ্য অধিকার বাংলাদেশ ও পিকেএসএফ এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাজী রিয়াজুল হক, চেয়ারম্যান, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, ড. মোঃ শাহ নেওয়াজ, অধ্যাপক ড. খালেদা ইসলাম, ড. নাজনীন আহমদ, মহসিন আলী সহ প্রমূখ।